পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/৬৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


88. শিখগুরু ও শিখজাতি জয়লাভ করিতে পারিলেন না । তাহার অনুচরেরা ভীত হইয়। দলে দলে পলায়ন করিতে লাগিল । গুরু গোবিন্দ অত্যন্ত বিপল্প হইয়া পড়িলেন + সুগঠিত দুর্গের অভ্যন্তরে তিনি আশ্রয় লইয়াছেন, কিন্তু তথায়ও থাঙ্কের অনাটন হুইল । ক্রমে সকলে তাহাকে ছাড়িয়া প্রাণভয়ে পলায়ন করিল, কেবলমাত্ৰ চল্লিশ জন বিশ্বাসী ভক্ত গুরুর সহিত মৃত্যুও শ্লাঘা বিবেচনা করিয়া তাহাকে ত্যাগ করিল না । বিপদ যখন ঘনীভূত হইয়া আসিল, তখন গুরু গোবিন্দ সম্মুখসংগ্রামে বীরের ন্যায় জীবন বিসর্জন করিবার নিমিত্ত প্রস্তুত হইতে লাগিলেন । তিনি র্তাহার বুদ্ধা জননী গুজরি, ফতেসিং ও জরওয়ার সিংহ নামক দুইটি শিশুপুত্রকে গোপনে সিরহিন্দে পাঠাইলেন । দুর্ভাগ্য-বশতঃ র্তাহারা মুসলমানদের হস্তে বন্দী হইলেন। মুসলমান শাসনকৰ্ত্ত ওয়াজির খাঁ গোবিন্দের শিশুপুত্রদ্বয়কে মুসলমানধৰ্ম্মে দীক্ষিত করিবার নিমিত্ত নানারূপ চেষ্টা করিতে লাগিলেন, কিন্তু বীরশিশুর কিছুতেই বিচলিত হইল না । তিনি তাহাদিগকে প্রলুব্ধ করিবার নিমিত্ত বলিলেন—“দেখ, তোমরা বালক, তোমাদের সহিত আমাদের কোনো বিরোধ থাকিতে পারে না, তোমরা মুদি মুসলমান ধৰ্ম্ম গ্রহণ কর মুক্তি পাইবে এবং ভবিষ্যতে উচ্চ রাজ-কাৰ্য্যে নিযুক্ত হইতে পারিবে।” বালকদ্বয় শাসন-কর্তার প্রস্তাবে অবজ্ঞা প্রদর্শন করিল একদিন শিশুদ্বয় দরবার-গৃহে বসিয়া আছে, এমন সময়ে শাসনকর্তা সস্নেহে তাহাদিগকে জিজ্ঞাসা করিলেন,—"বৎসগণ, আমি যদি তোমাদিগকে মুক্তি দান করি, তোমরা কি কৱিবে । * তাহারা ধীরভাবে উত্তর করিল—“ আমরা অবিলম্বে শিখসৈন্ত সংগ্ৰহ করিয়া যুদ্ধক্ষেত্রে আপনাকে নিহত করিব।” বিস্মিত হইয় শাসনকর্তা প্রশ্ন করিলেন—“আচ্ছ যুদ্ধে যদি তোমাদের পরাজয় হয়, তাহ হইলে কি করিবে ?” বীরশিশুদ্ধয় নিৰ্ভয়ে বলিয়া,