পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/৯৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


अप्टेम श्रथा'ाख्न 气使” বিসংবাদে তাহাদের মধ্যস্থ হইতেন । একাধিক দলপতি একত্র হইয়। কিছু লুণ্ঠন করিলে প্রথমে লুষ্ঠিত দ্রব্য দলপতিদের মধ্যে তুল্য পরিমাণে বিভক্ত হইত, পরে প্রত্যেক দলপতি প্রাপ্ত দ্রব্য আপন আশ্রিত লোকদিগকে ভাগ করিয়া দিতেন । কোনো শিখযুবক এক দলপতির অধীনে সৈনিকবৃত্তি গ্রহণ করিলে, তাহাকে আঞ্জীবন তাহার অধীনেই কার্য্য করিতে হইবে, এমন কোনো বাধাবাধি নিয়ম ছিল না ; সুযোগ পাইলে এক নেতার আশ্রিত শিখের কার্য্য ত্যাগ করিয়া দ্বিতীয় কোনোনেতার অধীনে কাৰ্য্য গ্রহণ করিতে পারিত । সুতরাং দলপতির আশ্রিতদের প্রতি দুর্ব্যবহার না করিয়া তাহাদিগের মনোরঞ্জনেরই চেষ্ট্র পাইতেন । জাঠযুবকের কোনো মিশলে প্রবেশ করিতে পারিলে আপনাদিগকে । সৌভাগ্যবান জ্ঞান করিত। প্রসিদ্ধ দলপতিদের নিকটে পাহুল গ্রহণ একটা বিশেষ গৌরব বলিয়। বিবেচিত হইত। জাঠযুবকেরা মনে করিত, মিশলে প্রবেশাধিকার পাইলেই তাহাঙ্গের নিকট ভাবী গৌরবের স্বাক্স खेशूङ झ्हेब्रा८शल। মুসলমানদের শাসনাধিকার বিলুপ্ত হইবার প্রাক্কালে পঞ্চনদপ্রদেশে উল্লিখিতরূপে স্বাধীন শিথমিশলের উদ্ভব হইতেছিল। ভিন্ন ভিন্ন শিখমিশলগুলির মধ্যে ঐক্যস্থাপনের একটা প্রবল কারণ উপস্থিত হইয়াছিল । আফগানরাজ আমেদ সাহের ভীষণ আক্রমণ হইতে আত্মরক্ষার নিমিত্ত দলগুলিকে মাঝে মাঝে সমবেত হইতে হইত। সুতরাং তাহাদের পরম্পরের মধ্যে যে বিরোধ ও বিদ্বেষ ছিল, প্রবল বহিঃশত্রুর সহিত জ্বম্বে, নিযুক্ত থাকিতে হইত বলিয়, তখন তাহা প্রবল আকার ধারণ করিতে পারে নাই। প্রয়োজন উপস্থিত হইবামাত্রই শিখের সাম্প্রদায়িক বিরোধ, ভুলিয়া দেশ-শত্রুর সস্থিত যুদ্ধ করিতে যাইত। তাহাঙ্গের জাতীয় মহাসভt