পাতা:শুভদা (নাটক) - শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.pdf/১৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হারাণ। (হাসিয়া) চোখ একটু লাল থাকা ভাল কাতুনইলে লোকে বলবে ন্যাবা হয়েছে । ( উচ্চ হাস্য ) ); হারাণের বাড়ী-ফাকে কলসী-নিয়ে ললনার প্রবেশ ! স্বামী, জন্যে ভাত বেড়ে সব ঢাকা দিয়ে শুভদা নিশ্চল পাথরের মত বসে আছে হাতে পাখা নীচে চৌকীর ধারে গাড়ু গামছা ! রাসমণির গলা শোনা গেল।-বলি ও বৌ-ও শুভদ। শুভদা । কী বলছো, দিদি ? [ রাসমণির প্রবেশ ] রাসমণি । এখনও খাসনি-! শুভদা । আর একটু দেখছি! রাসমণি । আমার পিণ্ডি । আর দেখে কী হবে ? ড্যাকর এতো বেলায় কী আর ফিরে আসবে! দেখগে যা, গাজা খেয়ে ভো হয়ে কার বাড়ী পড়ে আছে। মুখপোড়া মরলে -আমাদের হাড় জুড়োয় ! ললন । একাদশীর দিন বাবাকে গাল দিচ্ছে কেন পিসীমা ? রাসমণি । একাদশীর দিন গাল দিচ্ছি, কেন ? তুই সেদিনকার মেয়ে বুড়ো মাগীকে একাদশী সেখাতে আসিসনে । এতো বেলা পৰ্য্যন্ত কোথায় না খেয়ে নেশা করে পড়ে আছে। বুকের মধ্যে কী করছে তা ইষ্টদেবতাই জানছেন। বলি তোরই শুধু বাপ-আর আমার বুঝি কেউ হয় না। মা বাপ মারা এইটুকু ভাইকে যে বুকে করে মানুষ করেছি। ! শুভদা । চুপ করে দিদি ' ( ললনাকে ) এতো বড়, হয়েছিস মা—সব কথা বুঝে বলতে পারোনা। &