প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শেষ প্রশ্ন.djvu/১৪২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শেষ প্রশ্ন >○br বলিয়াই তাহার সেদিনের তর্কের ব্যাপারটা স্মরণ হইল, কমলের প্রতি চাহিয়া বলিল, আপনারও বোধ করি আমার কাজে সহানুভূতি নেই ? কমল কহিল, কাজটা আপৃনার ঠিক কি না জানলে তো বলা যায়ন হরেন্দ্রবাবু । কিন্তু পুবাকালের ছাচে তৈরি ক’রে তোলাটাই যে সত্যিকার মানুষের ছাচে গড়ে তোলা এও তো যুক্তি নয়। হরেন্দ্র বলিল, কিন্তু সেই যে আমাদের ভারতের আদর্শ ? ' কমল জবাব দিল, ভারতের আদর্শ-ই যে চিরযুগের চরম আদর্শ–এই বা কে স্থির করে দিলে বলুন ? অবিনাশ এতক্ষণ কথা কহেন নাই, রাগ চাপিয়া বলিলেন, চরম আদর্শ না হতে পারে, কমল, কিন্তু এ আমাদের পূর্ব-পিতামহগণের আদর্শ। ভারতবাসীর এই নিত্যকালের লক্ষ্য,—এই তাদের একটি মাত্র চলুবার পথ ! হরেনের আশ্রমের ব্যাপার আমি জানিনে, কিন্তু সে এই লক্ষ্যই যদি গ্রহণ করে থাকে আমি তাকে আশীৰ্ব্বাদ করি । কমল কিছুক্ষণ নিঃশব্দে তাহার মুখের প্রতি চাহিয়া থাকিয়া কহিল, জানিনে কেন মানুষের এ ভুল হয়। নিজেদের ছাড়া তারা যেন আর কোন ভারত-বাসীকে চোখে দেখতেই পায়না । আরও তো ঢ়ের জাত আছে—তারা এ আদর্শ নেবে কেন ? অবিনাশ কুপিত হইয়া কহিলেন, চুলোয় যাকৃ তারা । আমার কাছে এ আবেদন নিফল । আমি শুধু নিজেদের আদর্শ-ই স্পষ্ট কোরে দেখতে পেলে যথেষ্ট মনে কোরব। . কমল ধীরে ধীরে বলিল, এ স্থাপনার অত্যন্ত রাগের কথা অবিনাশ বাবু। নইলে এতবড় অন্ধ ভাবতে আপনাকে আমার প্রবৃত্তি হয়না। একটুখানি থামিয়া বলিল, কিন্তু কি জানি, পুরুষেরা সবাই বুঝি শুধু এমুনি কোরেই ভাবে । সেদিন অজিতবাবুর'সুমুখেও হঠাৎ এই প্রসঙ্গই