প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শেষ প্রশ্ন.djvu/২৩২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শেষ প্রশ্ন ’ i. २२br প্রত্যুত্তরে হরেন্দ্র ক্রোধে আরক্ত হইয়া কহিত, জানোয়ারের সঙ্গে ত যুক্তি-তর্ক চলেনা তার অন্য বিধি আছে। কিন্তু, সে ব্যবস্থা হয়ে ওঠেনা বলেই আপনি যাকে তাকে গুতিয়ে বেড়ান। ইতর-ভদ্র মহিলা-পুরুষ কিছুই বাদ যায়না। এই বলিয়া সে অপর দু’জনকে লক্ষ্য করিয়া কহিত, কিন্তু আপনারা প্রশ্রয় দেন কি বলে ? এতবড় একটা কুৎসিত ইঙ্গিতও যেন ভারি একটা পরিহাসের ব্যাপার ! தி & অবিনাশ অপ্রতিভ হইয়া কহিতেন, না না, প্রশ্রয় দেব কেন, কিন্তু জানোই তে অক্ষয়ের কাণ্ড-জ্ঞান নেই। হরেন , কহিত, কাণ্ড-জান ওঁর চেয়ে আপনাদের আরও কম । মানুষের মনের চেহারা তো দেখতে পাওয়া যায়না সেজদা, নইলে হাসি-তামাসা কমলোকের মুখেই শোভা পেতো। বিবাহের ছলনায় কমলকে শিবনাথ ঠকিয়েছেন, কিন্তু আমার নিশ্চয় বিশ্বাস সেই ঠকাটাও কমল সত্যের মতই মেনে নিয়েছিলেন, সংসারের দেনপাওনায় লাভ-ক্ষতির বিবাদ বাধিয়ে তাকে লোক-চক্ষে ছোট করতে চাননি। কিন্তু তিনি না, চাইলেই বা আপনারা ছাড়বেন কেন ? শিবনাথ তার ভালোবাসার ধন, কিন্তু আপনাদের সে কে ? Aক্ষমার অপব্যবহার আপনাদের সইলনা। এই তো আপনাদের ঘৃণার মূলধন ? একে ভাঙিয়ে যতকাল চালানো যায় চালান, আমি বিদায় নিলাম । এই বলিয়া হরেন্দ্র সেদিন রাগ করিয়া চলিয়া গিয়াছিল। তাহার মনের মধ্যে এই প্রত্যয় সুদৃঢ় ছিল যে কমলের মুখ দিয়াই একদিন এ কথা ব্যক্ত হইবে যে শৈব-বিবাহকে সত্যকার বিবাহ জানিয়াই সে প্রতারিত হইয়াছে, স্বেচ্ছায়, সমস্ত জানিয়া গণিকার মত শিবনাথকে আশ্রয় করে নাই। কিন্তু আজ তাহার বিশ্বাসের ভিত্তিটাই ধূলিসাৎ হইল। হরেন্দ্র