প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শেষ প্রশ্ন.djvu/২৩৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


వరీS , শেষ প্রশ্ন ই, সাত-আট দিন অসুস্থ। এর পূৰ্ব্বেই মনোরমা চলে গেছেন! আগুবাবুর খুড়ো কাশীবাসী, তিনি এসে নিয়ে গেছেন। শুনিয়া কমল চুপ করিয়া রহিল। হরেন্দ্র বলিতে লাগিল, শিবনাথ জানে আইনের দড়ি তার নাগাল পাবেনা, এই জোরে সে তার মৃত-বন্ধুর পত্নীকে বঞ্চিত করেছে, নিজের রুগ্ন-স্ত্রীকে পরিত্যাগ করেছে এবং নিৰ্ভয়ে আপনার সর্বনাশ করেছে। আইন সে খুব ভালই জানে, শুধু জানেন যে দুনিয়ায় এইই সব নয়, এর বাইরেও কিছু বিদ্যমান আছে। কমল সহাস্য কৌতুকে প্রশ্ন করিল, কিন্তু শাস্তিটা তার কি স্থির করেছেন ? ধরে এনে আর একবার আমার সঙ্গে জুড়ে দেবেন ? এই বলিয়া সে একটু হাসিল। প্রস্তাবটা হরেন্দ্রর কাছেও হঠাৎ এমনি হাস্যকর ঠেকিল যে সেও না হাসিয়া পারিলনা। কহিল, কিন্তু দায়িত্বটা যে এইভাবে নিজের খেয়াল মত নির্বিঘ্নে এড়িয়ে যাবে সেউ তো হতে পারেনা ? অার আপনার সঙ্গে জুড়েই যে দিতে হবে তারও তো মানে নেই ? কমল বলিল, তাহলে হবে কি এনে ? অামাকে পাহার দেবার কৰে লাগাবেন না, ঘাড়ে ধরে খেসারত মাদায় করে আমাকে পাইয়ে দেৱেন ? প্রথমতঃ, টাকা আমি নেবোনা, দ্বিতীয়তঃ, সে বস্তু তার নেই। শিবনাথ যে কত গরীব সে আর কেউ না জানে আমি ত জানি ।

  • তবে কি এতবড় অপরাধের কোন দণ্ডই হবেনা ? অার কিছু না হোকু বাজারে যে আজও চাবুক কিনতে পাওয়া যায় এ খবরটা তাকে তো জানানো দরকার ?

কমল ব্যাকুল হইয়া বলিল, না, না, সে করবেননা । ওতে আমার এতবড় অপমান, যে ত্রে আমি সইতে পারবোনা। কহিল, এতদিন এই রাগেই শুধু জলে মরছিলাম যে এমন চোরের মত পালিয়ে বেড়াবার কি প্রয়োজন