প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শেষ প্রশ্ন.djvu/২৯০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


રક્ત ' • শেষ প্রশ্ন বসিয়া তাহার মাথার মধ্যে হাত বুলাইয়া দিতে লাগিল, কিন্তু সাস্তুনার একটা কথাও উচ্চারণ করিলন। সম্মুখের খোলা জানাল দিয়া দেখা গেল পুবের আকাশ স্বচ্ছ হইয়া আসিয়াছে। অজিতবাবু, ঘুমোবার বোধ করি আর সময় নেই। . না, এইবার উঠি। এই বলিয়া সে চোখ মুছিয়া উঠিয়া বসিল । షిప్పి সংসারে সাধারণের একজন মাত্র,—এর বেশি দী আশুবাবু বোধ করি তার স্বষ্টিকৰ্ত্তার কাছে একদিনও করেন নাই । পৈতৃক বিপুল ধন-সম্পদও যেমন শান্ত আনন্দের সহিত গ্রহণ করিয়াছিলেন, বিরাট দেহ-ভার ও আনুষঙ্গিক বার্ত-ব্যাধিটাও তেমনি সাধারণ দুঃখের মতই স্বীকার কীিয়া লইয়াছিলেন। জগতের সুখ-দুঃখ যে বিধাতা তাহাকেই লক্ষ্য করিয়া গড়েন নাই, তাহাবু স্ব-স্ব নিয়মেই চলে,— এ সত্য শুধু বুদ্ধি দিয়া নয়, হৃদয় দিয়া উপলব্ধি করিতেও তাহাকে তপস্যা করিতে হয় নাই। সহজাত সংস্কারের মতই পাইয়াছিলেন। একদিন আকস্মিক স্ত্রী-বিয়োগের দুর্ঘটনায় সমস্ত পৃথিবী যখন চোখের সম্মুখে শুষ্ক হইয়া দেখা দিল, সেদিনও যেমন ভাগ্য-দেবস্তুকে অজস্র ধিক্কারে লাঞ্ছিত করেন নাই, একান্ত মেহের ধন মনোরম ও যেদিন উlহার সমস্ত আশা-ভরসায় আগুন ধরাইয়া দিল সেদিনও তেমনি মাথা খুড়িয়া কঁদিতে বসেন নাই। ক্ষোভ ও দুঃসহ নৈরাপ্তের মাঝখানেই র্তাহার মনের মধ্যে কে যেন অত্যন্ত পরিচিত কণ্ঠে বার বার করিয়া