প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শেষ প্রশ্ন.djvu/২৯৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


२8 S ", শেষ প্রশ্ন আদালতের দুৰ্গতি হইতে নিষ্কৃতি দিতে করজোড়ে প্রার্থনা করিল, কিন্তু স্ত্রী ক্ষমা করিলনা । শেষে বহুদুঃখে নিম্পত্তি একটা হইল। নগদে ও গ্রাসাচ্ছাদনের মাসিক বরাদে অনেক টাকা ঘাড় পাতিয়া লইয়া সে মামলার দায় হইতে রক্ষা পাইল હતા, দাম্পত্য-যুদ্ধে জয়লাভ করিয়া বেলা ভাঙা-স্বাস্থ্য জোড়া দিতে সিমূলা, মুসোরি, নইনি প্রভৃতি পৰ্ব্বতাঞ্চলে সদৰ্পে প্রস্থান করিল । সে আজ প্রায় ছয়-সাত বৎসরের কথা । ইহার অনতিকাল পরেই তাহার পিতার মৃত্যু হয়। এই ব্যাপারে তাহার সম্মতি তো ছিলইনা, বরঞ্চ, অতিশয় মৰ্ম্মপীড়া ভোগ করিয়াছিলেন । * আণ্ডবাবুর পরলোকগত পত্নীর সহিত, তাহার কি একটা দূর সম্পর্ক ছিল ; সেই সম্বন্ধেই বেলা আশুবাবুর আত্মীয়া । তাহার বিবাহ উপলক্ষেও নিমন্ত্রিত হইয়া তিনি উপস্থিত হইয়াছিলেন, এবং তাহার স্বামীর সহিতও পরিচয় ঘটিবার তাহার সুযোগ হইয়াছিল । এইরূপে নানা আত্মীয়তা-স্থত্রে আপনার জন বলিয়াই বেলা আগ্রায় আসিয়া উঠিয়াছিল ; নিতান্ত পরের মতও আসে নাই, নিরাশ্রয় হইয়াও বাড়ীতে ঢুকে নাই। এ তুলনায় নীলিমার সহিত তাহার যথেষ্ট প্রভেদ । , অথচ, অবস্থাটা দাড়াইয়াছিল, একেবারে অন্তরূপ। এ গৃহে কাহার স্থান যে কোথায়, এ বিষয়ে বাটীর কাহারও মনে তিলাৰ্দ্ধ সন্দেহ ছিল না । কিন্তু হেতুও ছিল যেমন অজ্ঞাত, কর্তৃত্বও ছিল তেমূনি অবিলম্বাদিত । বহুক্ষণ মৌন থাকার পরে বেলাই প্রথমে কথা কছিল ; বলিল, স্পষ্ট নয় মানি, কিন্তু আমাকে ধিক্কার-দেবার জন্যেই যে ও কথা নীলিমা বলেছেনঃ এ বিষয়ে আমার সন্দেহ নেই। , আগুবাবুর মনের মধ্যেও হয়ত সন্দেহ ছিলনা, তথাপি বিস্ময়ের কণ্ঠে জিজ্ঞাসা করিলেন,ধিকাৰু ? ধিক্কার কিসের জন্তে বেলা ? :