প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শেষ প্রশ্ন.djvu/২৯৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শেষ প্রশ্ন २>२ বেলা কহিল, আপনি তো সমস্তই জানেন । নিতুন্দ করবার লোকের সেদিনও অতাব হয়নি, আজও হবেনা। কিন্তু নিজের সম্মান, সমস্ত নারী-জাতির সম্মান রাখতে সেদিনও গ্রাহ করিনি, আজও কোরবনা। নিজের মর্য্যাদা খুইয়ে স্বামীর ঘর করতে চাইনি বলে সেদিন প্লানি প্রচার করেছিল মেয়েরাই সব চেয়ে বেশি, আজও তাদেরই হাত থেকে আমার নিস্তার পাওয়া সব চেয়ে কঠিন । কিন্তু অন্যায় করিনি বলে সেদিনও যেমন ভয় পাইনি, আজও আমি তেমনি নির্ভয় । নিজের বিবেকবুদ্ধির কাছে আমি সম্পূর্ণ খাটি । নীলিমা সলাই হইতে মুখ তুলিলনা, কিন্তু আস্তে আস্তে কহিল, একদিন কমল বলুছিলেন যে বিবেক-বুদ্ধিটাই সংসাবে মস্ত বড় বস্তু নয়। বিবেকের দোহাই দিয়েই সমস্ত ন্যায়-অন্যায়ের মীমাংস হয়না । আগুবাবু আশ্চৰ্য্য হইয়া কহিলেন, সে বলে নাকি ? নীলিমা কহিল, হঁ। বলেন ওটা শুধু নিৰ্ব্বোধের হাতের অস্ত্র। সাম্নে পিছনে দু’দিকেই কাটে,—ওর কোন ঠিকৃ-ঠিকানা নেই। অাণ্ডবাবু কহিলেন, সে বলে বলুক, ও-কথা তুমি মুখে এনোনা নীলিমা । বেলা কহিল, এত বড় দুঃসাহসের কথাও তো কখনো শুনিনি । আশুবাবু মুহূৰ্ত্তকাল মৌন থাকিয়া ধীরে ধীরে কহিলেন, দুঃসাহসই বটে। তার সাহসের অন্ত নেই। আপন নিয়মে চলে ; তার সব কথা সব সময়ে বোঝাও যায়না, মানাও চলেনা। o বেলা কহিল, আপন নিয়মে আমিও চলি আশুবাবু। তাই, বাবার নিষেধও মানতে পারিনি,—স্বামী পরিত্যাগ করলুম, কিন্তু ইেট হতে পারলুমনী ।