প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শেষ প্রশ্ন.djvu/৩৪০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শেষ প্রশ্ন । ৩৩৬ পাওয়ার শেষ কথা হোতে, তার মূল্য ছিলনা। সে একদিকের ক্ষতি আর একদিকের মস্ত সঞ্চয় দিয়ে পূর্ণ কোরে তোলে, নইলে, আমিই বা আজ বেঁচে থাকৃতাম কি কোরে ? বরঞ্চ, আপনি আশীৰ্ব্বাদ করুন ভুল যদি ভাঙে, তখন যেন সে নিজেকে মুক্ত করে নিতে পারে, তখন যেন কোন লোভ, কোন ভয় না তাকে রাহুগ্রহ করে রাখে। আশুবাবু চুপ করিয়া রহিলেন। জবাব দিতে বাধিল, কিন্তু স্বীকার করিতেও ঢের বেশি বাধিল । বহুক্ষণ পরে বলিলেন, পিতার দৃষ্টি দিয়ে আমি মণির ভবিষ্যৎ জীবন অন্ধকার দেখতে পাই। তুমি কি তবুও, সত্যিই বল যে আমার বাধা দেওয়া উচিত নয়, নীরবে মেনে নেওয়াই কৰ্ত্তব্য ? আমি মা হলে মেনেই নিতাম। তার ভবিষ্যতের আশঙ্কায় হয়ত আপনারই মত কষ্ট পেতাম, তবু এই উপায়ে বাধা দেবার আয়োজন কোরতামনা । মনে মনে বোলতাম, এ জীবনে যে-রহস্তের সামনে এসে আজ সে দাড়িয়েছে সে আমার সমস্ত হশ্চিন্তার চেয়েও বৃহৎ । একে স্বীকার করতেই হবে। আণ্ডবাবু আবার কিছুক্ষণ মৌন থাকিয়া কহিলেন, তবু বুঝতে পারলামনা কমল। শিবনাথের চরিত্র, তার সকল দ্বক্ষতির বিবরণ মণি জানে। একদিন এ বাড়ীতে আসতে দিতেও তার আপত্তি ছিল, কিন্তু আজ যে সন্মোহনে তার হিতাহিত-বোধ, তার সমস্ত নৈতিক-বুদ্ধি আচ্ছন্ন হয়ে গেছে, সে তো যথার্থ ভালোবাসা নয়, সে যাছ, সে মোহ –এ মিথ্যে যেমন কোরে হোক নিবারণ করাই পিতার কর্তব্য। এইবার কমল একেবারে স্তন্ধ হইয়া গেল এবং এতক্ষণ পরে উভয়ের চিন্তার প্রকৃতিগত প্রভেদ তাহার চোখে পড়িল। ইহানের জাতিই আলাদা, এবং প্রমাণের বস্ত নয় বলিয়াই এতক্ষণের এত