প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শেষ প্রশ্ন.djvu/৩৭৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


©ዓ> • শেষ প্রশ্ন , কমল বুঝিল, প্রত্নী-প্রেমের সুদীর্ঘ ছায়া এতদিন যে-সকল দিক * আঁধার করিয়াছিল তাহাই অাজ ধীরে ধীবে স্বচ্ছ হইয়া আসিতেছে। আগুবাবু বলিলেন, ভালো কথা । মণিকে আমি ক্ষমা করেচি । বাপের অভিমানকে আর তাকে চোখ রাঙাতে দেবোনা । জানি সে দুঃখ পাবেই, জগতের বিধিবদ্ধ শাসন তাকে অব্যাহতি দেবেন। অনুমতি দিতে তো পারবোন, কিন্তু যাবার সময় এই আশীৰ্ব্বাদটুকু রেখে যাবে। দুঃখের মধ্যে দিয়ে সে আপনাকে একদিন যেন আবার খুজে পায় । তার ভুল-ভ্রান্তি-ভালোবাসা,—ভগবান তাদের যেন সুবিচার করেন। বলিতে বলিতে ত্বাহার কণ্ঠস্বর ভারি হইয়া আসিল । Ö এমূনি ভাবে অনেকক্ষণ নিঃশব্দে কাটিল। র্তাহার মোটা হাতটির উপর কমল ধীরে ধীরে হাত বুলাইয়া দিতেছিল, অনেক পরে মৃদ্ধ কণ্ঠে জিজ্ঞাসা করিল, কাকাবাবু, নীলিমা দিদির সম্বন্ধে কি স্থির করলেন ? আশুবাবু অকস্মাৎ সোজা হইয়া উঠিয়া বসিলেন,—fকসে যেন র্তাহাকে ঠেলিয়া তুলিয়া দিল ; বুলিলেন, দেখো’ মা, তোমাকে আগেও বোঝাতে পারিনি, এখনো পারবোনা । হয়ত আজ আর সামর্থ্যও নেই। কিন্তু এখনো এ সংশয় আসেনুি যে একনিষ্ঠ প্রেমের আদর্শ মামুষের সত্য আদর্শ নয়। নীলিমার ভালোবাসাকে সন্দেহ করিনি, কিন্তু সেও যেমন সত্যি, তাকে প্রত্যাখ্যান করাও আমার তেমনি সত্যি । কোনমতেই একে নিফল আত্ম-বঞ্চনা বলুতে পারবোনা। এ তর্কে · মিলুবেনা, কিন্তু এই নিফলুতার মধ্যে দিয়েই মামুষে এগিয়ে যাবে। কোথায় যাবে জানিনে, কিন্তু র্যাকেই। সে আমার কল্পনার অতীত, কিন্তু এতবড় ব্যথার দান মানুষে একদিন পাবেই পারে। নইলে জগৎ মিথ্যে,—স্বষ্টি মিথ্যে । তিনি লিত্ত্বে লাগিলেন, এই যে নীলিমা,—কোন মানুষেরই যে