প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শেষ প্রশ্ন.djvu/৩৯৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Sybrs) শেষ প্রশ্ন ভগবানকেও ক্ষোয়য় । সতীশবাবুদের ਥਾਂ দুশ্চিন্তা রাখবেননা, ইরেনবাবু, ওঁদের সিদ্ধি স্বয়ং ভগবানের জিন্মায়। সষ্ট্রপকে প্রায় কেহই দেখিতে পারতন, তাই শেষ কথাটায় সবাই হাসিল । আগুবাবুও হাসিলেন, কিন্তু বলিলেন, আমাদের হিন্দু-শাস্ত্রের একটু বড় কথা আছে কমল,-আত্মদৰ্শন। অর্থাৎ, আপনাকে নিগুঢ় ভাবে জানা । ঋষিরা বলেন, এই খোজার মধ্যেই আছে বিশ্বের সকল জানু,—সকল জ্ঞান। ভগবানকে পাবারও এই পথ। এরই তরে ধ্যানের ব্যবস্থা । তুমি মানোনা, কিন্তু যারা মানে, বিশ্বাস করে, তাকে চায়, জগতের বহু বিষয় থেকে নিজেদের বঞ্চিত কোরে মা রাখলে তারা একাগ্র চিত্ত-যোজনায় সফল হয়না। সতীশকে আমি ধাপনে কিন্তু এ যে হিন্দুর আচ্ছিন্ন-পরম্পরায় পাওয়া সংস্কার, কমল । এই তো যোগ । আসমুদ্র-হিমাচল-ভারত অবিচলিত শ্রদ্ধায় এই তত্ত্ব বিশ্বাস করে। ভক্তি, বিশ্বাস ও ভাবের আবেগে তাঙ্গার দুই চক্ষু ছল ছল করিতে লাগিল । বাহিরের সর্ববিধ সাক্ষ্মেীনার নিভূওঁ তলদেশে যে দৃঢ়নিষ্ঠ বিশ্বাস-পরায় হলুচিত্ত নিৰ্ব্বাত দীপশিখার স্তায় নিঃশব্দে জলিতেছে, কমল চক্ষের পলকে তাহাকে উপলব্ধি করিল। কি একটা বলিতে cπή, কিন্তু সঙ্কোচে বাধিল , সঙ্কোচ আর কিছুর জন্য নয়, শুধু এই সত্যব্রত, সংযতেন্দ্রিয় বৃদ্ধকে ব্যথা দিবার বেদনা। কিন্তু উত্তর না পাইয়া जैिन নিজেই যখন প্রশ্ন করিলেন, কেমন কমল, এই কি সত্যি নয় ? তখন সে মাথা' নাড়িয়া বলিস্ট্রট না, আওবাবু সত্যুি নয়। শুধু তো হিন্দুর নয়, এ বিশ্বাস সকল ধৰ্ম্মই আছে। কিন্তু কেবলমাত্র বিশ্বাসুের জোরেই তো কোন-কিছু কখনো সত্যি হয়ে, জুন-ত্যাগের জোরেও নয়, মৃত্যু-বরণ-করার জোরেও নয়। অতি তুচ্ছ মতের অনৈক্যে "বহু প্রাণ বহুবার সংসারে দেওয়া-নেওয়া হয়ে গেছে। - তাতে জিদের