প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শেষ প্রশ্ন.djvu/৯৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


S ఏ শেষ প্রশ্ন মনোরমা জবাব দিল, জিজ্ঞাসা করবার কি আছে বাবা ? জিজ্ঞাসা করিবার অনেক আছে, কিন্তু করাও কঠিন,—বিশেষতঃ, মণির পক্ষে । ইহা তিনি জানিতেন । তথাপি কহিলেন, সে যে রাগ করে আছে এ তো খুব স্পষ্ট । বোধ হয় সে ভেবেচে তুমি তাকে উপেক্ষা.করো। এ রকম অন্যায় ধারণা তো তার মুন রাখা যেতে পারে না । ਜਾਂ। বলিল, আমার সম্বন্ধে ধারণা যদি তিনি অন্যায় করে থাকেন সে র্তারদোয । একজনের দোষ সংশোধনের গরজটা কি আর একজনকে গায়ে পোড়ে নিতে হবে বাবা ? © পিতা এ প্রশ্নের উত্তর দিতে পারলেননা। মেয়েকে তিনি যেভাবে মানুষ করিয়া আসিয়াছেন তাহাতে তাহার আত্ম-সম্মানে আঘাত পড়ে এমন কোন আদেশই করিতে পারেননা। সে উঠিয়া গেলে এই কথাটাই নিজের মধ্যে অবিশ্রাম তোলাপাড়া করিয়া তিনি অতু্যন্ত বিমর্ষ হইয়া রহিলেন । এরূপ কলহ ঘুটিয়াই থাকে, এবং এ ভ্রম ক্ষণিক মাত্র, এমন একটা কথা তিনি বহুবার মনে মনে আবৃত্তি করিয়াও জোর পাইলেননা। অজিতকে তিনি জানিতেন। শুধু কেবল সে সকল দিক দিয়া সুশিক্ষিতই নয়, তাহার মধ্যে এমন একটা চরিত্রের সত্যপরতা তিনি নিঃসংশয়ে উপলব্ধি করিয়াছিলেন যে, আজিকার এই অহেতুক বিরাগের ক্লোনমতেই সামঞ্জস্য হয়না । সকলের অপরিসীম উদ্বেগের হেতু হইয়াও সে লজ্জাবোধের পরিবর্তে রাগ করিয়া রহিল এমন অসম্ভব যে কি করিয়ম ভাতাতে সম্ভবপর হইল মীমাংসা করা কঠিন, বিকালের দিকে একখান টাঙ্গা গাড়ী গেটের মধ্যে ঢুকিতে দেখিয়া আণ্ডবাবু খবর লইয়া জানিলেন গাড়ী আসিয়াছে অজিতের জন্য।