পাতা:শ্রীকান্ত (তৃতীয় পর্ব).djvu/২১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


●कड-कृ€ौन्न नद ●● বেদনা যাহাকে টান দিয়া বাহির করিয়াছে, তাহাকে একটি মাত্র ভগিনীর স্নেহ, দধির সর এবং মাছের মুড়ো দিয়া ধরিয়া রাখিবে কি করিয়া ? औक्ल সাধুজী ত স্বচ্ছদে চলিয়া গেলেন। তাছার বিরহব্যথাটা রতনের কিরূপ বাজিল অবশ্য জিজ্ঞাসা DD DD DDS DDDDD BBBB BD DD DBB BD S DD BBDD DB BBB DBB B ঘরে ঢুকিলেন এবং তৃতীয় ব্যক্তি রছিলাম আমি। লোকটার সহিত পুরাপুরি চব্বিশ ঘণ্টাও ঘনিষ্ঠত হইতে পায় নাই ; তথাপি আমারও মনে হইতে লাগিল, আমাদের এই অনারব্ধ সংসারের মাঝখানে তিনি যেন মস্ত বড় একটা ছিদ্র করিয়া দিয়া গেলেন। এই অনিষ্টটি আপনা হইতেই সারিয়া উঠিবে কিংবা নিজেই তিনি আবার একদিন অকস্মাৎ তাহার প্রচণ্ড ঔষধের বাঙ্গটা ঘাড়ে করিয়া ইহা মেরামত করিতে সশরীরে ফিরিয়া আসিবেন, বিদায়কালে কিছুই বলিয়া গেলেন না। অথচ আমার নিজের খুব যে বেশি উদ্বেগ ছিল তাও নয়। নানা কারণে এবং বিশেষ করিয়া কিছুকাল হইতে জ্বরে ভুগিয়া দেহ ও মনের এমনই একটি নিস্তেজ নিরালব্ধ ভাৰ আসিয়া পড়িয়াছিল যে, একমাত্র রাজলক্ষ্মীর হাতেই সর্বতোভাবে আত্মসমপণ করিয়া সংসারের যাবতীয় ভাল-মন্দর দায় হইতে অব্যাহতি লইয়াছিলাম। সুতরাং কিছুর জন্যই স্বতন্ত্রভাবে চিস্তা করিবার আমার আবশ্যকও ছিল না, শক্তিও ছিল না। তবুও মানুষের মনের চঞ্চলতার যেন বিরাম নাই। বাহিরের ঘরে একটা তাকিয়া ঠেস দিয়া একাকী বসিয়া আছি, ক৬ কি যে এলোমেলো ভাবনা আনাগোনা করিতেছে তাহার সংখ্যা নাই, সম্মুখের প্রাঙ্গণতলে আলোর দীপ্তি ধীরে ধীরে মান হইয়া আসন্ন রাত্রির ইঙ্গিতে অনমনস্ক মনটাকে মাঝে মাঝে এক একটা চমক দিয়া যাইতেছে, মনে হইতেছে এ-জীবনে যত রান্ত্ৰি আসিয়াছে গিয়াছে তাহাদের সহিত আজিকার এই অনাগত নিশার অপরিজ্ঞাত, মূর্তি যেন কোন অদৃষ্টপূর্ব নারীর অবগুষ্ঠিতা মুখের মত রহস্যময়। অথচ, এই অপরিচিতার কেমন প্রকৃতি কেমন প্রথা কিছুই না জানিয়া একেবারে ইহার শেষ পর্যন্ত পৌছিতেই হইবে, মথাপথে আর ইহার কোন বিচারই চলিবে না। আবার পরক্ষণেই যেন অক্ষম চিন্তার সমস্ত শৃঙ্খলই এক নিমিষে ভাঙ্গিয়া বিপর্যন্ত হইয়া যাইতেছে। এমনি যখন মনের অবস্থা, সেই সময়ে পাশের দ্বারটা খুলিয়া রাজলক্ষ্মী প্রবেশ করিল। তাহার চোখ দুটো সামান্য একটু রাঙ্গা, একটু যেন ফুল-ফুল। ধীরে ধীরে আমার কাছে আসিয়া বসিয়া বলিল, ঘুমিয়ে পড়েছিলাম। কছিলাম, আশ্চর্য কি ! যে ভার, যে প্রাক্তি তুমি বয়ে বেড়াচ্চ, আর কেউ হলে ত ভেঙ্গেই পড়ত, BB BB BB D DDDBBB BB BB BBB BBB BS BBBBS BB BBBS রাজলক্ষ্মী হাসিয়া কহিল, কিন্তু কুম্ভকর্ণের ম্যালেরিয়া ছিল না। যাই হে, তুমি ত দিনের বেলায় ঘুমেও নি ? বলিলাম, না, কিন্তু এখন ঘুম পাচ্চে, হয়ত একটু ঘুমোব। কারণ, কুম্ভকর্ণের যে ম্যালেরিয়া ছিল না এমন কথাও বাল্মীকি মুনি কোথাও লিখে যাননি। সে ব্যস্ত হইয়া বলিল, খুমোৰে এই আবেলায়। রক্ষে কর তুমি, জর কি তা হলে আর কোথাও বাকি থাকবে ? সে সব হবে না-আচ্ছা, যাবার সময় আনন্দ কি আর কিছু তোমাকে বলে গেল? প্রশ্ন করিলাম, কি রকল্প কথা তুমি আশা কর ? রাজলক্ষ্মী কহিল, এই যেমন কোথায় কোথায় যাবে ; কিংবা— এই কিংবটাই আসল প্রশ্ন। কছিলাম, কোথায় কোথায় যাবেন তার একপ্রকার আভাস দিয়ে গেছেন, কিন্তু এই কিংৰটিার সম্বন্ধে কিছুই বলে বননি। আমি ত তার ফিরে আসার বিশেষ কোন সম্ভাবনা দেখিনে । রাজলক্ষ্মী চপ করিয়া রছিল, কিন্তু আমি কৌতুহল সংবরণ করতে পারলাম না। জিজ্ঞাসা করিলাম, আচ্ছ এই লোকটিকে কি তুমি বাস্তবিক চিনেচ? আমাকে যেমন একদিন চিনতে পেরেছিলে ? °न आयात्र भूप्ञ्च भएम चणकण झुन कब्रिद्धा शकिग्रा कश्णि, ना।