প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শ্রীকান্ত (তৃতীয় পর্ব).djvu/৩০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ভোগটি দিয়ে এসো গে বাবা! আহিকের বাকিটুকু শেষ করতে আর আমার মেয়ী হবে না। আমার BB BB BBBDS DD DDD DDBB DD DDDSDD BB BB BBS MB BBD DBB প্রত্যুত্তরের অপেক্ষায় আর দেরি না করিয়া চক্ষের পলকে নিজেই অদৃশ্য হইয়া গেলেন। এইবার যথাকালে, অর্থাৎ যথাকালের অনেক পরে আমাদের মধ্যাহ-ভোজনের ঠাই করার খবর পৌছিল। বাঁচা গেল। কেবল অতিরিক্ত বেলার জন্যে নয়, এইবার জাগণ্ডকগণের প্রশ্নবাণে বিরতি অনুভব করিয়াই হাঁক ছাড়িয়া বঁচিলাম। তাহারা আহার্য প্রস্তুত হইয়াছে শুনিয়া অন্ততঃ কিছুক্ষণের জন্য আমাকে অব্যাহতি দিয়া যে যাহার বাড়ি চলিয়া গেলেন। কিন্তু খাইতে বসিলাম কেবল আমি একা । কুশারীমহাশয় সঙ্গে বসিলেন না, কিন্তু সম্মুখে আসিয়া বসিলেন। হেতুটা তিনি সকিলয়ে এবং সগৌরৰে নিজেই ব্যক্ত করিলেন। উপবীত-ধারণের দিন হইতে ভোজনকালে সেই ষে মৌনী ইয়াছিলেন, সে ব্রত আজও ভঙ্গ করেন নাই ; সুতরাং একাকী নির্জন গৃহে এই কাজটা তিনি এখনও সম্পন্ন করেন। আপত্তি করিলাম না, আশ্চর্যও হইলাম না। কিন্তু রাজলক্ষ্মী সম্বন্ধে যখন শুনিলাম, আজ তাহারও নাকি কি একটা ব্রত আছে--পরায় গ্রহণ করিবে না, তখনও আশ্চর্য হইলাম। এই ছলনায় মনে মনে ক্ষুব্ধ হইয়া উঠিলাম এবং ইহার কি যে প্রয়োজন ছিল তাহা ভাবিয়া পাইলাম না। কিন্তু রাজলক্ষ্মী আমার মনের কথা চক্ষের পলকে বুঝিয়া লইয়া কহিল, তার জন্যে ভূমি দুঃখ কোরো না, ভাল করে খাও। আমি যে আজ খাব না, এরা সবাই জানতেন। বলিলাম, অথচ আমি জানতাম না। কিন্তু এই যদি, কষ্ট স্বীকার করে আসার কি আবশ্যক ছিল ? ইহার উত্তর রাজলক্ষ্মী দিল না, দিলেন কুশারীগৃহিণী। কহিলেন, এ কষ্ট আমিই স্বীকার করিয়েচি বাবা। মা যে এখানে খাবেন না তা জানতাম ; তবু আমরা ধীদের দয়ায় দুটি অন্ন পাই, তাদের পায়ের ধুলো বাড়িতে পড়বে এ লোভ সামলাতে পারলাম না। কি বল মা ? এই বলিয়া তিনি রাজলক্ষ্মীর মুখের প্রতি চাহিলেন। রাজলক্ষ্মী বলিল, এর জবাব আজ নয় মা, আর একদিন আপনাকে দেব। এই বলিয়া সে হাসিল । আমি কিন্তু অত্যন্ত আশ্চর্য হইয়া কুশারীগৃহিণীর মুখের প্রতি চোখ তুলিয়া চাহিলাম। পল্লীগ্রামে, বিশেষ এইরূপ সুদূর পল্লীতে ঠিক এমনি সহজ সুন্দর কথাগুলি যেন কোন রমণীর মুখেই শুনিবার কল্পনা করি নাই ; কিন্তু এখনও যে এই পল্লী অঞ্চলেই আরও একটি ঢের বেশি আশ্চর্য নারীর পরিচয় পাইতে বাকী ছিল, তা স্বপ্নেও ভাবি নাই। আমার পরিবেশনের ভার বিধবা কন্যার উপর অর্পণ করিয়া কুশারীগৃহিণী তালপাখা হাতে আমার সুমুৰে বসিয়ছিলেন। বোধ হয়, বয়সে আমার অনেক বড় হইবেন বলিয়াই মাথার উপর অঞ্চলখনি ছাড়া মুখে কোন আবরণ ছিল না। তাহা সুন্দর কিংবা অসুন্দর মনেই হইল না। কেবল এইটুকুই মনে হইল, ইহা সাধারণ বাঙ্গালী মায়ের মতই স্নেহ ও করশায় পরিপূর্ণ। স্বারের কাছে কর্তী স্বয়ং দীড়াইয়া ছিলেন ; বাহির হইতে র্তাহার মেয়ে ডাকিয়া কহিল, বাবা, তোমার খাবার দেওয়া হয়েছে। কেলা অনেক হইয়াছিল এবং এই খবরটুকুর জন্যই বোধ হয় তিনি সাগ্রহে অপেক্ষা করিতেছিলেন ; তথাপি একবার বাহিরে ও একবার আমার প্রতি দৃষ্টিপাত করিয়া কহিলেন, এখন একটু থাক মা, বাবুর খাওয়াটা— - গৃহিণী তৎক্ষণাৎ বাধা দিয়া ৰলিয়া উঠিলেন, না, তুমি যাও, মিথ্যে সময় নষ্ট কোরো না। ঠাণ্ড BB BB BBB BBB DD D DD DDSTBB BB BB DBBBBDD SDDDS नर्छ चाब्र केि शय, याबून्न धर्म७ब्रछि झटक्नई शक मा। BB BBBS BB BBBB BB BBBB BB DDB BDD DBB DDC BBB DS DDB BgSBBB BBS SB BBB BD DBB BB BBD BBDS DBB BBB BBBBS DD BB BBDSDB DD DBBBS DDD DDD BB DBB BBB BBB BBB BB BB D BD DDD DDDD D DDD DB BB DDD DBDDS DDD DD D BBDDD DDDD DBBD D DBBD D BBDD BBB BBD DDD HHD DD DHB BB DDD D DD DD DB DD BD DD DDD DD DS DD DDD LLL D DD BBBBDDS BBDD DBYBB BBD DD SDDB BD DD DD DD DS DD DDD