পাতা:শ্রীমদ্‌ভগবদ্‌গীতা-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/১৩৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দ্বিতীয় অধ্যার । 然零象 স্বারা সংসারগ্রেীব্য হেতু বিবেকের অবসর থাকে না ।” বেদের কতটুকু কৰ্ম্মকাণ্ড, আর কতটুকু জ্ঞানকাও, সে বিষয়ে কোন ভ্রম না ঘটিলে, আনন্দগিরির এ কথায় আমাদের কোন আপত্তি নাই । শ্ৰীধর স্বামী বলেন, “ত্রিগুণাত্মকাঃ সকাম যে অধিকারিণস্তদ্বিষয়াঃ কৰ্ম্মফলসম্বন্ধপ্রতিপাদক ৰেজাঃ” । এই ব্যাখ্যা অবলম্বনে প্রাচীন বাঙ্গালা অনুবাদক হিতলাল মিশ্র বুঝাইয়াছেন যে “ত্রিগুণাত্মক অর্থাৎ সকাম অধিকারীদিগের নিমিত্তই tে) বেদ সকল কৰ্ম্মফল সম্বন্ধে প্রতিপাদক হক্সেন * جا که শ্ৰীধরের বাক্যেরই অনুসরণ করিয়া কালীপ্রসর সিংহের মহাভারতকার এই শ্লোক"দ্ধের অনুবাদ করিয়াছেন যে—“বেদসকল সকাম ব্যক্তিদিগের কৰ্ম্মফলপ্রতিপাদক ।” অদ্যান্তেও সেই পথ অবলম্বন করিয়াছেন । উভয় ব্যাখ্যা মৰ্ম্মতঃ এক । সেই ব্যাখ্যা গ্রহণ করিয়া এই শ্লোকের প্রথমাৰ্দ্ধ বুঝিতে চেষ্টা করা যাউক । তাহ হইলেই ইহার অর্থ এই হইতেছে যে “cহ অৰ্জুন ! বেদ সকল সংসারপ্রতিপাদক বা কৰ্ম্মফলপ্রতিপাদক । তুমি বেদকে অতিক্রম করিয়া সাংসারিক বিষয়ে বা কৰ্ম্মফল বিষয়ে নিষ্কাম হও ।” কথাটা কি হইতেছিল স্মরণ করিয়া দেখা যাউক । প্রথমে তগবান অৰ্জুনকে সাংখ্যবেগ বুঝাইয়া তৎপরে কৰ্ম্মযোগ বুঝাইবেন অতিপ্রায় প্রকাশ করিয়াছেন । কিন্তু কৰ্ম্মযোগ কি, তাহা এখনও বলেন নাই । কেন না কৰ্ম্ম সম্বন্ধে যে একটা গুরুতর সাধারণ ভ্রম প্রচলিত ছিল, ( এবং এখনও আছে ) প্রথমে তাহার নিরাপ করী কৰ্ত্তব্য। নহিলে প্রকৃত কৰ্ম্ম কি, অর্জুন তাহ বুঝিবেন না । সে সাধারণ ভ্ৰম এই, যে বেদে যে সকল যজ্ঞাদির অনুষ্ঠান