পাতা:শ্রীমদ্‌ভগবদ্‌গীতা-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/২২১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


》* ঐীমদ্ভগবদগীতা । করিয়া থাকে স্বধৰ্ম্ম কি, তাহ পূৰ্ব্বে বুঝাইয়াছি। বর্ণাশ্রমধৰ্ম্মই যে স্বধৰ্ম্ম, এমন অর্থ করা যায় না । কেন না, যে সকল সমাজের মধ্যে বর্ণাশ্ৰমধৰ্ম্ম নাই, সে সকল সমাজের প্রতি এই উপদেশ অপ্রযেীক্তব্য হয়। কিন্তু ভগবন্ধুক্ত ধৰ্ম্ম সাৰ্ব্বজনীন, মনুষ্যমাত্রেরই রক্ষা ও পরিত্রাণের উপায় । অতএব স্বধৰ্ম্ম এইরূপই বুঝিতে হুইবে, যে ইহজীবনে যে, যে কৰ্ম্মকে আপনার অনুষ্ঠেয় কৰ্ম্ম বলিয়া গ্রহণ করিয়াছে, তাহাই তাহার স্বধৰ্ম্ম । যে সমাজে বর্ণাশ্ৰমধৰ্ম্ম প্রচলিত, এবং যে সমাজে সে ধৰ্ম্ম প্রচলিত নহে, এতদুভয়ের মধ্যে প্রভেদ এই, যে বর্ণাশ্ৰমধৰ্ম্মীর পুরুষপরম্পরায় এক জাতীয় কাৰ্য্যকেই আপনার অমুষ্ঠেয় কৰ্ম্ম বলিয়া গ্রহণ করিতে বাধ্য হন । অদ্য সমাজে, লোক অপেন অপেন ইচ্ছ, প্রবৃত্তি, সুযোগ এবং শক্তি অনুসারে কৰ্ম্মে প্রবৃত্ত হয় । শক্তি ও প্রবৃত্তির অনুযারী বলিয়া অথবা আজীবন অভ্যস্ত বলিয়া স্বধৰ্ম্মই লোকের অনুকুল । কিন্তু অনেক সমরে দেখা যায়, যে ইন্দ্রিয়াদির বশীভূত হইয়া ধনাদির লোভে বিমুগ্ধ হইয়া, স্বধৰ্ম্ম পরিত্যাগ পূৰ্ব্বক লোকে পরধৰ্ম্ম অবলম্বন করে । তাহীদের প্রায় ঘোরতর অমঙ্গল ঘটিয়া থাকে। প্রাচীন ভাষ্যকারের এই অমঙ্গল পারলৌকিক অবস্থা সম্বন্ধেই বুঝেন। কিন্তু ইহলোকেও যে স্বধৰ্ম্মত্যাগ এবং পরধৰ্ম্ম অবলম্বন অমঙ্গলের কারণ, তাহ। আমরা পুনঃপুনঃ দেখিতে পাই। যে সকল পুরুষ স্বধৰ্ম্মে থাকিয়, তাহার সদনুষ্ঠান জন্ত প্রাণপণ যত্ন করেন, এবং তাহার সাধন জন্য মৃত্যু পৰ্য্যস্ত স্বীকার করেন, র্তাহীরাই ইহলোকে বীর বলির বিখ্যাত হইয়া থাকেন। এবং স্বধৰ্ম্মের অনুষ্ঠানে কৃতকাৰ্য্য হইতে পারিলে, তাহারাই ইহলোকে যথার্থ সুখী হয়েন। কিন্তু