পাতা:শ্রীমদ্‌ভগবদ্‌গীতা-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/২৫৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


戈8象 খ্ৰীমদ্ভগবদগীতা । 象 আছে—অতএব এখানে কৰ্ম্মশূন্ততাও কৰ্ম্ম । কেন না ফলোৎপত্তির কারণ । যিনি ইহা বুঝতে পারেন, তিনিই জ্ঞানী । যস্ত সর্বে সমারস্তাঃ কামসঙ্কল্পবৰ্জ্জিতা: জ্ঞানাগ্নিদগ্ধকৰ্ম্মাণং তমাহুঃ পণ্ডিতং বুধাঃ ॥ ১৯ ॥ র্যাহার সকল চেষ্টা কাম ও সঙ্কল্পবৰ্জিত, এবং যাহার কৰ্ম্ম জ্ঞানাগ্নিতে দগ্ধ, তাহাকেই জ্ঞানিগণ পণ্ডিত বলেন । ১৯ । “কামসঙ্কল্প” এই পদের অর্থের উপর শ্লোকের গৌরব কিয়ৎ পরিমাণে নির্ভর করে । শঙ্করাচার্য্যকৃত অর্থ এই —“কামসঙ্কল্পBBiJS SBBBBBBBBBB BDDBBBBBS BBBBB ব্যাখ্যা এই, “কাম্যতে ইতি কামঃ । ফলং তৎসঙ্কল্পেন বর্জিতা: | মধুসূদন সরস্বতী বলেন, কামঃ ফলতৃষ্ণা। সঙ্কল্পোহহং করোমীতি কর্তৃত্বাভিমানস্তাত,াং বর্জিতা: । এইরূপ নানা মুনির নানা মত । মধুসূদন সরস্বতীকৃত সঙ্কল্প শব্দের অর্থ আভিধানিক নহে, কিন্তু এখানে খুব সঙ্গত । শঙ্করাচাৰ্য্যকৃত, কাম এবং তাহার কারণ সঙ্কল্প উভয়-বিবর্জিত হইলে কৰ্ম্মে প্রবৃত্তির অভাব জন্মিবে। ঘে কৰ্ম্ম কয়িবার অভিলাষ রাখে, এবং ফল কামনা করে না, সে কৰ্ম্ম করিবে কেন ? এজন্ত শঙ্করাচার্য্য নিজেই বলিয়াছেন, “মুধৈব চেষ্টামাত্রা অনুষ্ঠায়ন্তে প্রবৃত্তেন চেলোকসংগ্ৰহাৰ্থং নিবৃত্ত্বেন জীবনযাত্রার্থং।” অর্থাৎ ঈদৃশ ব্যক্তির সমারম্ভ সকল অনর্থক চেষ্টা মাত্র । প্রবৃত্তিমাগে, কেবল লোকশিক্ষার্থ, এবং নিবৃত্তিমার্গে কেবল জীবনবাত্রানিৰ্ব্বাহাৰ্থ । পাঠকদিগের নিকট জামার বিনীত নিবেদন, যে তাহা হইলেও কাম ও সঙ্কল্পবৰ্জিত হইল ল ।