প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:সিক্ত সিঁথি দুরন্ত শ্রাবণ.pdf/৪৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চিত্ৰলেখা নিঃস্রোত জল। পায়ের পাতা ডোবালে যেই খরস্রোতা । দু’ধারে তীর—তীব্র শায়ক ছুটে চললো। জলাঞ্জলি ভাঙা দেউল বাধানো ঘাট সি দুরলিপ্ত অশথ-তলা, পউষ প্রখর হলেও রক্তে জলে উঠলো—চিত্ৰলেখা । ইচ্ছে মতো পবিত্ৰ পাপ বয়ঃসন্ধি তীব্র মুদ্র নটী নটী নটীই—তোমায় সাজালো এক সামন্তরাজ পাত্র এবং মিত্র এবং নিজেও যখন চরিতার্থ খোপার মধ্যে আমি আমার অ-লোকচক্ষু ইনাম দিলাম না বকুল না চন্দ্ৰমল্লী, হিংস্র-কলুষ-কুটিল রাত্রি নেীকে উৎক্ষিপ্ত ধনুক—দু’ধারে বন মধ্যবর্তী । বিয়াল্লিশ