প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:সিক্ত সিঁথি দুরন্ত শ্রাবণ.pdf/৪৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ইচ্ছে হ’লে ইচ্ছে হলে মিলিয়ে দেওয়া যেত ঘর এবং তমাল-বন মাঠ, শব্দ ছিল ভৃত্য আজ্ঞাধীন নিজেও প্রভু মুক্তক সম্রাট । সারা রাত্রি নিখুঁত গানে স্বর শুনিয়ে ঘুম ভাঙার ঠিক আগে ঝোপ বুঝে কোপ মারা যেত প্রচণ্ড সোহাগে। ইচ্ছে হলে অভ্যন্ত অনেক মিল ছিপ ফেললেই উঠে আসতো মস্ত মৃগেল অচ্ছোদ সলিল, যুক্ত হ’ত স্নানাধিনীর মুদ্রা অধিকন্তু প্রবীণ মাড়ি এড়িয়ে কিছু হাসাও যেত দস্তুর । বিকেল দিত রঙ, ও তুলি সন্ধ্য রাজ্যপাট কৃষ্ণাশাড়ির অস্তাচলে রক্ত জমজমাট । একটু মাত্র একটুখানি উসকে দিলেই যদি শিরায় উপশিরায় ইচ্ছা অজস্র নদ-নদী ॥ তেতাল্লিশ