পাতা:সিক্ত সিঁথি দুরন্ত শ্রাবণ.pdf/৬০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অ-স্বকীয় আহারান্তে হাতে ঠেকৃলো ছুরি-বিদ্ধ পান – চতুর চোখের নীলাঞ্জনা—স্ত্রী পরস্ত্রী, নীল-নিয়নে কেঁপে উঠলো পরবর্তী স্বর ;– তারপরে ঠিক তিন রাত্তির দৌড়িয়েছিলাম । জলের মধ্যে নদী ছিলো, পাখীর মধ্যে খাচা, মৃতদেহের মধ্যে ছিলো অপরিসীম বঁাচা । ঘরের অালে নিভিয়ে দিতেই—বাতাসের দিব্যি ভুরুর মধ্যে এয়োত টিপু : আস্ত পরস্ত্রী । পানের বুকে বিধে রইলো লবঙ্গের ফলা, অকৃত্রিম হাসতে গিয়ে রক্ত উঠে এলো । সরস্বতী যমুনাবতী নিরুদ্দেশে ঘুরে— খোপার চতুর আড়ালে ফের পতিগৃহে যান ।