প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:সিমার - শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.pdf/২৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বাড়ি চলে যাওয়া । মদিনা কোথায় যাবে ? বাপ কোথায় ! মদিনা সুখবাসের ঘরেই আছে । সুখাবাসের বুদ্ধি বেড়ে গেছে। বিচার ক্ষমতা শক্তিশালী হয়েছে। সে আর কিছুতেই বাড়িতে ঢুকতে চাইল না । কখনো যদি বাড়ি যাবে স্থির করত, তবে জঙ্গল থেকে খবব পাঠাত, সে আসছে । ভাইরা মায়েরা মাচায় গিয়ে তার সাথে কথা বলে আসত। খাবার পৌঁছে দিত। সুখবাসকে ঘরে টেনে আনতে পারেনি । গভীর বেদনা পেলে মানুষ যেমন নরম আর ভারী গলায় কথা বলে সুখবাস সেইভাবে কথা বলত । বলত।--তোমরা কেনে দুঃখ পাও । কেঁদো না । সব ঠিক হয়ে যাবে । আমি মদিনাকে ছাড়তে পারব না । ওকে ছাড়া আমি বাঁচব না । ওরই ঘর, ওকে দিয়ে আমি বনবাসী হয়েছি। তিন মাস পর আমি যাব জঙ্গলে মশার কামড় সইতে হয় । ভয়ও করে একলা । মদিনাকে দেখতে ইচ্ছে করে । কথা বলতে ইচ্ছে করে। কিন্তু উপায় নেই। সইফুল্লার দল পাহাবা দিচ্ছে। সুখবাসদের পালাঙ্গায় মাচার উপর মধ্যরাত অব্দি আজকাল লোক গুলজার হয়। সাইফুল্লার লোক এসে বসে থাকে । ভোরে দুপুরে সাঁঝে লোক ঘুরে বেড়ায় । সুখবাস বাড়িতে ঢুকছে কিনা লক্ষ করে । কারণে অকারণে সইফুল্লার লোক বাড়িতে বিড়ির আগুন দরকার বলে ঢুকে পড়ে। এই অত্যাচার বাবা সইতে পারে না । তার ধৈর্য নষ্ট হয়ে গিয়েছে । ছেলের জন্য মায়া হয় । আবার তার আদিখ্যেতা দেখে রাগ হয় । এই বাড়ির আগের তেজ নষ্ট হয়ে যায় । বাপ চাইছিল, ছেলে জঙ্গল থেকে ফিরে এসে ঘরে থাক । মদিনার দায়িত্ব খোদার। যেথা খুশি সে চলে যাক । ফুরিয়ে যাক। শেষ হয়ে যাক । ভিখিরি হয়ে যাক । বেশ্যা হয়ে যাক । মদিনাকে বাড়ির কেউই আর তেমন সহ্য করতে পারে না। কিন্তু মদিনা পাগল সুখবাসের কথা ভেবে, মুখ চেয়ে এই যাতনার তুচ্ছ-তাচ্ছিল্যের সংসারে পড়ে থাকে । বুঝতে পারে পাগল সুখবাস, নিষ্ঠুব সিমার তাকে ভালোবেসেছে। তারই জন্য জঙ্গলে পড়ে আছে। রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছে। কিন্তু তিনমাস সময় তো কম নয়। এতদিন ধৈর্য থাকবে তো সুখবাসের ? গভীর রাত্রে স্ত্রী-দেহের জন্য সুখবাসের কষ্ট হবে না ? বাড়ির লোক মাচায় গিয়ে নানারকম করে বোঝাচ্ছে । চাপ দিচ্ছে । অথচ মনের যে জোরে লোকটা অমন করে পড়ে আছে তার পক্ষের একমাত্র মানুষ মদিনাই । গভীরতর রাতে একদিন মদিনা জঙ্গলের মাচায় এসে ওঠে । দেহদান করে । কোনো কথা হয় না। কোনো কথা বলে না । দেহদানের মধ্যেই থাকে মানুষের আর এক ধর্মশক্তি। যা কেতাবী ধর্মের চেয়ে গুঢ় । যে কথা মদিনা জীবন ও জৈব প্ৰাণে অনুভব করে। পদাৰ্থ হাদিস কোরান। ঈমান সে রাত্রির অন্ধকারে জলাঞ্জলি Se