প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:সিমার - শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.pdf/৪২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বলছি । রুস্তম বললে, সে কারণ জেনে কী লাভ ? রাবেয়ার কাছেই জেনে নিও । হামিদুল বললে, আমিও কারণটা পষ্ট করে এখন আর বলতে পারি নে। কেন দিলাম ? তাই তো, কেন দিলাম ? আমি খুব পাপী রে মামুন । শয়তান ! হামিদুল কেঁদে ফেললে । রাবেয়া চা নিয়ে এসে ট্রে-টা টেবিলে নামিয়ে বললে, তোমরা নিজে হাতে তুলে নাও । আমার বড় খিদে পেয়েছে। একাই আমি পাঁচখানা ক্রিম বিস্কুট খেয়েছি । তোমাদের একখানার বেশি ভাগে হলো না । চা খেতে খেতে খতিব সাহেব বললেন, বিয়ে যখন, গুরুত্বটা বিয়ের মতোই হওয়া দরকার । তারও একটা গাভীর্য লাগে । তোমরা সবাই ঠিক মতো স্থির হও । মামুন, তুমি ভালো পোশাক পরে এস । রাবেয়া বললে, এতক্ষণে বুঝলাম কথাটা ! যে সাধের বিয়ে, তার পায়ে আলতা দিয়ে । খতিব সাহেব, আপনি এ অনুষ্ঠানের যত মাহাত্ম্য বাড়বেন, আমার বুকে ততই শেলের মতো বিধবে । এ জিনিস যে কত ছিনিমিনি, এ সমাজ আমাদের সে কথা মুখ ফুটেও বলতে দেয়নি । বললাম, কিন্তু রাবেয়া, এই বিয়ে যে আমার সত্যি বিয়ে রাবেয়া, আমি তো এর আগে কখনো বিয়ে করিনি । পরিবেশ আমার এই কথায় কেমন বিষগ্ন আর গভীর হয়ে উঠল । খতিব সাহেব বললেন, জানি, তোমার ঘরে টুপি নই। নাও এই টুপিটা মাথায় পরে ফেল। বল, আছন্তাগ-ফো-রুল্লাহা খতিব সাহেব দোয়া কালাম দিয়ে শুরু করে বললেন, মা তবলাকুম ! বিয়ে হচ্ছে চুক্তি, সোসাল কনট্রাক্ট । নরনারীর যৌন সম্পর্কের বৈধতাকে স্বীকৃতি দেয় যে চুক্তি, মা তবলাকুম, সেই চুক্তির নামই নিকাহ । এই চুক্তির জন্য চাই দেনমোহর। এই দেনমোহর সম্পর্কে দু। ধারামত রয়েছে। তাই আবু হানিফার মতে নূনপক্ষে দু টাকা দশ আনা, অর্থাৎ দুটাকা বাষট্টি পয়সা দেনমোহর কম্পালসারি, তার কমে চলে না । অবিশ্যি ইমাম শাফির মতে যৎসামান্য দেনমোহরেও নিকাহ সিদ্ধ হতে পারে। রুস্তম বললে, সে কথায় আমাদের কাজ কি শরীফ সাহেব ! যে ভাবে সম্ভব তাই করুন না কেন ? খতিব সাহেব বললেন, দেখ বাপু ! হাদিস-কুরানকে উল্টে দিয়ে আমি তো এক পা-ও চলতে পারিনে । কেউ একজন ছেলেছোকরা মোল্লাজিকে ধরে আনলেই তো পারতে । শিকদারকে তখনই বলেছিলাম, গাঁয়েই কারো সাথে 88