প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:সিমার - শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.pdf/৬৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


-- না । একদম না । এটা চোরা পথ । এটা কোনো পথই নয় । এ নদী နျူfဗဲရ( | --নদীর ওপর রাগ করছ, কেন ? -চিতি একটি সাপের নাম । এটা কোনো কবিতা নয়, আমি ভুল বলেছি। --বেশ, বেশ। তাই সই। কিন্তু সব ঘটনাকে একটু অন্যরকম করে ভাবলে ভয়ের কিছুই ছিল না । রোজাকার একটা সাধারণ ঘটনা -ক-দিন আগে এই নদীর দকিজলে (পলিজলে) একটি নধর গাই পুঁতে মরেছে, গাইটার দকি-সমাধি হয়েছে। ফুলমতি বলেছে আমাকে । -এ কথা আগে বলনি কেন ? দকি থাকলেই সমাধি হতে পারে । সব নদী সমান । তুমিই বলেছ। --বলেছি বেশ করেছি। তুমি বেছে বেছে সেই নদীতে কেন এনেছ, জানি a -কেন এনেছি ? -এখানে এভাবে বেড়াতে তোমার ভয্য করছে না ? বুকে হাত দিয়ে বল ! একটু আগেই ঐ বুড়োটাকে আর বউটিকে আমাদের খুব চেনা মনে হয়েছিল। হয় নি ? —হয়েছিল। কিন্তু ওরা কেন, কেউ আমাদের এখানে চেনে না। -ইয়েস, চেনে না। চিনলে কী করতে ? চেনা হলে নিশ্চয় তুমি আসতে না ? কেন আসবে, আমাকে নিয়ে সব সময় তুমি কাঁপছ, লজ্জা পাচ্ছি। কিন্তু বিশ্বাস কর, আমার কারণে তুমি ছােট হবে, আমি তা চাই নে মামুন ! লোকচক্ষে, কেন তুমি বিড়ম্বিত হবে ! সত্যি তো তোমার কোনো দোষ নেই। এইজন্যে কোথাও কখনো কোনোদিন বাইরে যাওয়ার আবদার করিনি। আমি এক্ষুনি ফিরব । একদণ্ডও আর নয়। বলেই রাবেয়া ঘুরে দাঁড়িয়ে খেয়াঘাটের দিকে ছুটে চলল। আমি অবাক হয়ে গেলাম। বললাম। পিছু হাঁটতে হাঁটতে, দেখ রাবেয়া ! তুমি মস্ত ভুল করছি। নদীকে ঘিরে আমার ইমোশন তুমি বুঝতে পারনি। যে কোনো মানুষের কবি হওয়া আজকের পৃথিবীতে নিতান্ত দুঃখজনক । ভাবছিলাম, এতক্ষণ তুমি এই নদী আর প্রকৃতিকে নিয়ে আর্ট-হিউমার করছিলে, এতটা সিরিয়াস হবে, ভাবি নি । —সব কিছুই তোমার কাছে আর্ট, সব কিছুই হিউমার। আমরা তেমন করে 5øICN5 °ifà Go ! --তুমি যেমন করে চলছ, সেটাও কিন্তু স্বাভাবিক নয়। নিজের জীবনটাকে সইতে পারছি না বলেই কি আমার ওপর এ রকম অত্যাচার করবে ? Ver