পাতা:সিরাজদ্দৌলা - অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়.pdf/৩০৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করার সময় সমস্যা ছিল।


ত্রয়োবিংশ পরিচ্ছেদ।

চন্দননগর-ধ্বংস।

 নবাবের প্রত্যুত্তর না পাইয়া ইংরাজেরা সহসা কিংকর্ততব্য স্থির করিয়া উঠিতে পারিলেন না। ক্লাইব বলিতে লাগিলেন যে, হয় সন্ধি কর, না হয় এখনই যুদ্ধঘোষণা কর। ওয়াট্‌সন্ সন্ধিতেও অসম্মত, নবাবের অনুমতি না লইয়া যুদ্ধঘোষণা করিতেও অসম্মত। অগত্যা সন্ধির লেখাপড়া যেমন চলিতেছিল, সেইরূপই চলিতে লাগিল; অথচ কোন কথারই মীমাংসা হইল না।

 সিরাজদ্দৌলা যে ফরাসিদিগের সর্ব্বনাশসাধনে সহায়তা করিবেন না, সে বিষয়ে কাহারও সন্দেহ ছিল না। সুতরাং সকলেই বুঝিয়াছিলেন যে, ফরাসির সঙ্গে কলহ বিবাদ উপস্থিত করিলে প্রকারান্তরে সিরাজদ্দৌলার সঙ্গেই কলহ করার ফল হইবে। সেই জন্য সকলেই বলিয়াছেন,—“সন্ধিভঙ্গ মহাপাপ; নবাবের নিষেধ লঙ্ঘন করিয়া যুদ্ধ করা হইবে না।” কিন্তু