পাতা:সিরাজদ্দৌলা - অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়.pdf/৩০৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
২৯৫
অতঃপর কেবল যুদ্ধ।

হইল; ক্লাইব বাহিরে আসিয়া ফরাসি-দূতকে ডাকিয়া বলিলেন, ‘আর সন্ধি হইবে না; অতঃপর কেবল যুদ্ধ।’

 সহসা ইংরাজের মতিপরিবর্ত্তন হইল কেন, ফরাসিরা আর তাহা লইয়া কোনরূপ অন্দোলন করিলেন না। ইংরাজ তাঁহাদের পুরাতন বন্ধু (!) সুতরাং নূতন পণ্টন আসিয়াছে বলিয়াই যে তাঁহাদের মতিপরিবর্ত্তন হইল, ফরাসিরা তাহা সহজেই বুঝিতে পারিলেন। তাঁহারা চন্দননগরে সংবাদ পাঠাইলেন যে, আর সন্ধির আশা বৃথা; অতঃপর কেবল যুদ্ধ!

 ইংরাজ-দরবার স্থির করিলেন, অতঃপর কেবল যুদ্ধ! কিন্তু ওয়াট্‌সন্ তাহাতে সম্মত হইলেন না। নবাবের অনুমতি না পাইলে তিনি কিছুতেই যুদ্ধঘোষণা করিবেন না, এ সংবাদে ক্লাইব হতবুদ্ধি হইয়া পড়িলেন। জাহাজগুলি ওয়াট্‌সনের আজ্ঞাবহ, জাহাজ না লইয়া চন্দননগর আক্রমণ করা বিড়ম্বনা মাত্র; সুতরাং ওয়াট্‌সন কে বুঝাইবার জন্য সকলেই ব্যস্ত হইয়া উঠিলেন। কিন্তু ওয়াট্‌সনের সংকল্প অচল অটল। সকলেই বুঝিয়াছিলেন যে সিরাজদ্দৌলার অনুমতি পাওয়া অসম্ভব; তথাপি ওয়াট্‌সনের অনুরোধে নবাবের অনুমতির জন্য অপেক্ষা করিতে হইল।

 ওয়াট্‌সন্ ভাবিয়াছিলেন যে, সিরাজদ্দৌলা দিল্লীর ভয়ে জড়সড় হইয়াছেন, এ সময়ে একটু তর্জ্জন গর্জ্জন করিয়া পত্র লিখিলে অবশ্যই অনুমতি পাওয়া যাইবে। তিনি সেই উদ্দেশ্যে লিখিয়া পাঠাইলেন:—

 স্পষ্ট কথা বলিবার সময় উপস্থিত হইয়াছে। শান্তিরক্ষা করা যদি আপনার অভিপ্রেত হয়, অসহায় প্রজাপুঞ্জের ধনপ্রাণ রক্ষা করা যদি আপনার রাজধর্ম্ম হয়, তবে অদ্য হইতে দশ দিবসের মধ্যে আমাদের প্রাপ্য শেষ কপর্দ্দক পর্যন্ত পরিশোখ করিয়া দিবেন। অন্যথাচরণ করিলে সমূহ দুর্ঘটনা উপস্থিত হইবে। আমরা কেবল, সরল ব্যবহার করিয়া আসিতেছি, এখনও সরল ব্যবহার করিবার জন্যই বলিতেছি আমাদের অবশিষ্ট সেনাদল শীঘ্রই কলিকাতায় উপনীত হইবে, এবং আবশ্যক বুঝি