পাতা:সিরাজদ্দৌলা - অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়.pdf/৩২৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
৩১১
নবাব দরবার।

আর একজন অপরিণতবয়স্ক ভারতব্যয় স্বাধীন নরপতি,—একজন ইতিহাসে চিরগৌরবান্বিত, আর একজন স্বদেশে বিদেশে সকলের নিকটেই চিরধিক্কৃত! কিন্তু দুইজনের কথা এবং কার্য্যের বিচার করিয়া দেখ,— কে কিরূপ সমাদর লাভ করিবার যোগ্যপাত্র! সিরাজদ্দৌলা কলঙ্কগ্রস্ত, কিন্তু কেবল রাজধর্ম্ম পালন করতে গিয়াই কি তিনি ইংরাজদিগের বিরাগভাজন হইয়াছিলেন না? ওয়াট সন্ তাঁহাকে যে সকল পাপকার্য্যে লিপ্ত হইবার জন্য বারম্বার অনুরোধ করিয়া পত্র লিখিয়াছেন, তাহাতে সম্মত হইলেই কি সিরাজচরিত্র কলঙ্কমুক্ত হইত?

 সিরাজদ্দৌলা শান্তিসংস্থাপনের জন্য ইংরাজদিগকে ক্ষতিপূরণ প্রদান করিয়াও আলিনগরের সন্ধিপত্রে স্বাক্ষর করিয়াছিলেন। তাঁহার পাত্রমিত্রগণ ছিদ্রান্বেষী গৃহশত্রু; সুতরাং পুনরায় ইংরাজদিগের সঙ্গে শান্তিভঙ্গ করিতে সাহস হইল না। তিনি শান্তির জন্য ব্যাকুল হইয়া উঠিলেন।

 নবাব-দরবারের সুচতুর পাত্রমিত্রগণ বুঝিলেন যে, ইহাই উপযুক্ত অবসর। তাঁহারা বলিতে লাগিলেন যে, ফরাসিদিগকে কাশিমবাজারে আশ্রয়দান করার জন্যই পুনরায় শান্তিভঙ্গের সম্ভাবনা হইয়াছে, অতএব তাহাদিগকে পাটনা প্রদেশে প্রেরণ করা হউক। সিরাজদ্দৌলা এই নিঃস্বার্থ হিতবাক্যের মধ্যে কোনরূপ দুষ্টাভিসন্ধির সন্ধান পাইলেন না; তিনি ফরাসি-সেনায়ক লাস্ সাহেবকে তদনুরূপ আদেশ প্রদান করিলেন।[১] লাস্ রাজধানীতে থাকিয়া অল্পদিনের মধ্যে সকল অবস্থা পর্য্যবেক্ষণ

  1. মুতক্ষরীণে এবং তারিখ-ই-মন সুরীতে ইঁহার নাম ‘মসিয় লাস্’ বলিয়া লিখিত আছে। “M, Las—In all English Histories of India known to me, his name is misspelt Mr. Law.”-Blochmann's Notes on Sirajud daula, Journal of the Asiatic Society, 1867.