পাতা:সিরাজদ্দৌলা - অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়.pdf/৩৫৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
৩৪৪
সিরাজদ্দৌলা।

 ক্লাইবের চরিতাখ্যায়ক বলেন যে, ক্লাইবের যে সকল কাগজপত্র তাঁহার হস্তে সমর্পিত হইয়াছিল, তন্মধ্যে এই সামরিক সভার কার্য্যবিবরণী ছিল। তাহাতে প্রশ্নটি এইরূপ লিখিত আছেঃ— “বর্ত্তমান অবস্থায় অন্যের সাহায্য না লইয়া আত্মবলেই নবাবশিবির আক্রমণ করিব, কি দেশীয় শক্তির সহায়তা না পাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করিব?”[১]

 এই বিষয়ে মহাসভায় সাক্ষ্য দিবার সময়ে সামরিক সভার অন্যতম সভ্য মেজর কুট (ইনি পরবর্ত্তী ইতিহাসে স্যর আয়ারি কূট নামে প্রসিদ্ধ) বলিয়া গিয়াছেন যে, প্রশ্নটা এইরূপঃ—“এরূপ ক্ষেত্রে এখনই নবাবের সহিত সংঘর্ষ উপস্থিত করাই কর্ত্তব্য, কি বর্ষাশেষ না হওয়া পর্যন্ত কটোয়ায় আত্মরক্ষা করিয়া আমাদের সাহায্যার্থ মহারাষ্ট্রসেনাদলকে আহ্বান করা কর্ত্তব্য;[২] সমসাময়িক ইতিহাসলেখক অর্ম্মিও এই মর্ম্মেই লিখিয়া গিয়াছেন।[৩]

  1. Whether in our present situation, without assistance, and on our own bottom, it would be prudent to attack the Nabob, or whether we should wait till joined by one country power? —Sir John Malcolm.
  2. Whether in those circumstances it would be prudent to come to an immediate action with the Nabob, or fortify themselves (English) where they were, and remain till the monsoon was over. and the Marhattas could be brought into the country to join us. Coote's Evidence, First Report, p. 153.
  3. Whether the army should immediately cross in to the island of Casimbazar, and at all risks attack the Nabob; or whether, availing themselves of the great quantity of rice, which they had taken at Kutwa, they should maintain themselves there during the rainy season, and in the meantime invite the Marhattas to enter the Province to join them?-Orme vol. ii. 170.