পাতা:সিরাজদ্দৌলা - অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়.pdf/৩৮৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
৩৭৫
সিরাজের উদ্দেশ্য।

গাড়ীর ক্রোড়বাহিনী মহানন্দানদীর ভিতর দিয়া উজান বাহিয়া উত্তরাভিমুখে চলিতে আরম্ভ করিলেন।

 মুতক্ষরীণ-লেখক সিরাজের পলায়ন-প্রণালীর দোষপ্রদর্শন করিবার জন্য লিখিয়া গিয়াছেন যে,—“স্থলপথে পলায়ন করিলেই ভাল হইত; অর্থলোভেই হউক আর স্নেহবশতই হউক, অনেকে তাঁহার অনুগমন করিতে পারিত; এবং বহুজনবেষ্টিত সিরাজদ্দৌলাকে কেহ সহজে কারারুদ্ধ করিতে পারিত না।”[১] কিন্তু সিরাজ কি উদ্দেশ্যে একাকী নোকারোহণে পলায়ন করিয়াছিলেন, তাহার রহস্য-নির্ণয় করিলে মুতক্ষরীণের সমালোচনায় আস্থা স্থাপন করিতে পারা যায় না।

 কেবল প্রাণরক্ষার জন্য পলায়ন করা আবশ্যক হইলে, ভগবান্‌গোলা হইতে পদ্মাস্রোতে পূর্ব্বাভিমুখে তরণী ভাসাইয়া দিলেই অনায়াসে দূরাঞ্চলে উপনীত হইতে পারা যাইত। সিরাজদ্দৌলা যে আত্মপ্রাণ তুচ্ছ করিয়া কেবল মোগলগৌরব রক্ষা করিবার জন্যই জন্যশূন্য রাজধানী হইতে পলায়ন করিয়াছিলেন, তাঁহার পলায়ন-প্রণালীই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণ।[২] কোনরূপে পশ্চিমাঞ্চলে পলায়ন করিয়া মসিয় লা সাহেবের সেনাসহায়ে পাটনা পর্য্যন্ত গমন করা ও তথায় রামনারায়ণের সেনাবল লইয়া সিংহাসন রক্ষার আয়োজন করাই সিরাজদ্দৌলার উদ্দেশ্য ছিল।[৩] বিহার

  1. Riyaz-us salateen. রেণেল-কৃত প্রাচীন মানচিত্রে গোদাগাড়ীর নিকট মহানন্দা নদীই দেখিতে পাওয়া যায়।-এখন কিন্তু সেখানে পদ্মার প্রবল তরঙ্গ!
  2. It was his intention to escape to M. Law, and with him to Patna, the Governor of which province was a faithful servant of his family.-Orme ii. 179.
  3. “সিরাজদ্দৌলা যে প্রাণরক্ষার জন্য পলায়ন না করিয়া সিংহাসন রক্ষার জন্যই পলায়ন করেন, স্বয়ং মীরজাফরেরও সেইরূপ ধারণা হইয়াছিল। তিনি সেই জন্য রাজমহলের পথে সিরাজদ্দৌলাকে ধরিবার জন্য লোক লস্কর প্রেরণ করেন। সিরাজদ্দৌলাও জানিতেন যে, তাঁহাকে রাজমহলের পথেই ধরিবার জন্য লোক লস্কর প্রেরিত হইবে। তিনি তজ্জন্য সরল সুপরিচিত স্থলপথ ছাড়িয়া অজ্ঞাতপূর্ব জলপথে মালদহ ঘুরিয়া রাজমহলে উপনীত হইবার আয়োজন করিয়াছিলেন।