পাতা:সিরাজদ্দৌলা - অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়.pdf/৪১১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
৩৯৭
সিরাজদ্দৌলার ভাগ্যনির্ণয়।


 এই সকল বর্ণনা পাঠ করিলে, এই সকল অবস্থা বিবেচনা করিলে, মীর- জাফরের সপ্তদশবর্ষীয় হতভাগ্য পুত্র মীরণকে অপরাধী করিতে সাহস হয় । মীরণের দুৰ্বত্ত চরিত্রই যদি সিরাজদ্দৌলার হত্যাকাণ্ডের একমাত্র কারণ হইত, তবে মীরণ তাঁহাকে রাজমহলে অথবা পথিমধ্যে যে কোন- স্থানে হত্যা করিলেই ত সকল গোলযোগের মূলোচ্ছেদ করিতে পারিতেন। সিরাজদ্দৌলার ভাগ্যনির্ণয়ের জন্য পাত্রমিত্র লইয়া মন্ত্রণা করিবার প্রয়োজন হইত না!

 সিরাজদ্দৌলাকে কারারুদ্ধ করিবার জন্য যাহাদের সর্বাপেক্ষা অধিক আগ্রহ, তাহাকে রাজমহল হইতে মুর্শিদাবাদে আনয়ন করিবার প্রস্তাব যাহাদের নিকট সুপরিচিত, সেই ইংরাজ সেনাপতি কর্ণেল ক্লাইব তখন মীরজাফরের পৃষ্ঠরক্ষার জন্য তাঁহার সহিত ভাগীরথীর পশ্চিম তীরেই অব- স্থিতি করিতেছিলেন। তিনি তখন সৰ্ব্বেসৰ্বা,—তাহার কৃপাকটাক্ষের প্রতীক্ষায় স্বয়ং মীরজাফর পর্যন্তও তটস্থ। তাঁহাকে কিছুমাত্র না জানা- ইয়া মীরজাফর কি এরূপ গুরুতর ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করিতে সাহস পাইয়া- ছিলেন?

 মীরজাফর নিজে সিরাজদ্দৌলার ভাগ্যনির্ণয়ের তর্ক বিতর্কে কোন পক্ষেই সম্মতিজ্ঞাপন করেন নাই।[১] যাহারা তাহার পাপপথের সহচর তাহাদের মধ্যেও অনেকে স্বার্থরক্ষার জন্য সিরাজদ্দৌলাকে জীবিত রাখিতে চেষ্টা করিয়াছিলেন, তথাপি সিরাজদ্দৌলা নিহত হইলেন কেন? কাহার অনু- রোধ প্রবল হইল?—যাঁহারা কূটনীতিবিশারদ তাঁহাদের মতেই হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হইয়াছিল তদ্বিষয়ে ইংরাজ-ইতিহাস-লেখকদিগেরও কিছুমাত্র

  1. Jaffier himself gave no opinion:—Orme, ii. 184.