প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:সুকথা - দীনেশচন্দ্র সেন.pdf/১৩৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৩০ সুকথা বলেন যে, তিনি আর পূজা করিতে পারেন না । তিনি এই সময় সর্বদাই অচেতন অবস্থায় থাকিতেন । কখন কখন গঙ্গাতীরে বালুতে মুখ গুজড়াইয়া “মা” “মা”। বলিয়া কঁাদিতেন । কখন কখন কাতর হইয়া কঁাদিয়া বলিতেন, “মা, আমার অহং জ্ঞান নাশ কর। দে মা, আমায় দীনের দীন হীনের হীন ক’রে দে মা । মা, আমি অষ্টসিদ্ধি চাই না, লোকমান্য হইতে চাই না, আমায় দেখা দে মা ।” কখনও বা তৰ্পণ করিবার জন্য হাতে জল লইবামাত্ৰ তাহার শর্নীর এলাইয়া পড়িত । তিনি অ, ধরল চক্ষুজলে ভাসিয়া থর থর কঁাপিতে থাকিতেন এবং শিশুর ন্যায় “মা” “মা” বলিয়া আকুল হইয়া ডাকিতেন । দিন রাত এইভাবে অনাহারে অনিদ্রায় কাটিয়া যাইত । রামকৃষ্ণ যে সময় কঠোর ,