প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:সুকথা - দীনেশচন্দ্র সেন.pdf/৬২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


48 সুকথা দিন প্ৰাতে দিগম্বর দাড়াইতে পারেন। নাই,-বিকে বলিলেন, “আমার বড় । ক্ষুধা পাইয়াছে, আমায় চারিটি চাল দেও, আমি রান্না করিয়া খাই।” বিী চারিটি চাউল দিল, দিগম্বর তাহ চড়াইয়া দিয়া মনে করিলেন, সেই বাড়ীর গাছে বড় বড় করমচা হইয়াছে, তাহার কয়েকটা ভাতে দিলে খাইতে পরিবেন । এই মনে করিয়া করমচা ভাতে পাক করিলেন । আহার করিতে বসিয়া বির নিকট একটুকু লবণ চাহিলেন । ঝি বলিল, “নুন বাসায় নাই, বাজার হইতে আনিতে। দেরি হইবে।” দিগম্বর ভাত খাইতে আরম্ভ করিয়া দেখিলেন, লবণ বাবে ভাত অত্যন্ত বিস্বাদ হইয়াছেন। নুন পাইবেন না জানিলে তিনি করমচা ভাতে দিতেন না। এখন আর খাইতে পারেন না। উপবাসী দিগম্বরের ভাত মুখে ।