প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:হরিলক্ষ্মী.djvu/৯৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
হরিলক্ষ্মী

হে, এ ব্যাটার খাজনা বাকি পড়েছে কিনা। থাকে ত জাল- টাল কিছু একটা কেড়ে এনে যেন রেখে দেয় - হারামজাদা পালাতে পারে।

মুখুয্যে বাড়িতে শ্রাদ্ধের দিন - মাঝে কেবল একটা দিন মাত্র বাকী। সমারোহের আয়োজন গৃহিণীর উপযুক্ত করিয়াই হইতেছে। বৃদ্ধ ঠাকুরদাস নিজে তত্ত্বাবধান করিয়া ফিরিতে- ছিলেন, কাঙালী আসিয়া তাঁহার সম্মুখে দাঁড়াইয়া কহিল, ঠাকুরমশাই, আমার মা মরে গেছে।

তুই কে? কি চাস তুই?

আমি কাঙালী। মা বলে গেছে তেনাকে আগুন দিতে।

তা দিগে না।

কাছারির ব্যাপারটা ইতিমধ্যেই মুখে মুখে প্রচারিত হইয়া পড়িয়াছিল, একজন কহিল, ও বোধ হয় একটা গাছ চায়। এই বলিয়া সে ঘটনাটা প্রকাশ করিয়া কহিল।

মুখুয্যে বিস্মিত ও বিরক্ত হইয়া কহিলেন, শোন আবদার। আমারই কত কাঠের দরকার - কাল বাদে পরশু কাজ। যা যা, এখানে কিছু হবে না - এখানে কিছু হবে না। এই বলিয়া অন্যত্র

প্রস্থান করিলেন।

৯০