এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


________________

অণ্টা হইতে অজণ্টা গ্রামটির দূরত্ব প্রায় ১১ কিলােমিটার | ( ৭ মাইল )। ৭৬ মিটার ( ২৫০ ফুট) উচ্চ একটি খাড়া পাহাড়ের পার্শ্বদেশ কাটিয়া গুহাগুলি নির্মিত। প্রায় ৫৪৯ মিটার ( ৬০০ গজ) ব্যাপিয়া অর্ধবৃত্তাকারে গুহাগুলি অবস্থিত ; বিভিন্ন সময়ে বিচ্ছিন্নভাবে নির্মিত হওয়ায় পূর্ব-পরিকল্পনার অভাব পরিলক্ষিত হয়। ফলে ইহাদের মেঝে অনুভূমিক নয় ; ৮ নং গুহা সর্বনিম্নে এবং ২৯ নং | সর্বোচ্চে। পূর্বে প্রায় প্রত্যেক গুহাই নিজস্ব সােপানের দ্বারা নীচে প্রবহমান নদী ওয়াঘােরার সহিত সংযুক্ত ছিল। | এই সােপানগুলির মাত্র দুইটি এখন অবশিষ্ট। অসমাপ্ত গুহাসহ গুহার সংখ্যা মােট ৩০। তন্মধ্যে ৫টি | ( গুহা নং ৯, ১০, ১৯, ২৬ এবং ২৯ ) চৈত্যগৃহ; অবশিষ্ট | ২৫টি সংঘারাম। বৌদ্ধ শৈলখাত স্থাপত্যধারার দুইটি | বিশিষ্ট পর্বে ইহার। নির্মিত। দুই পর্বের মধ্যে প্রায় চার শতাব্দীর ব্যবধান। প্রথম পর্বভুক্ত ৬টি গুহাই ( ৮, ৯, ১০, ১২, ১৩ ও ১৫-এ ) খ্রীষ্টপূর্ব যুগের এবং প্রাচীনতমটি (১০) খ্ৰীষ্টপূর্ব দ্বিতীয় শতকের। ইহাদের মধ্যে ৯ ও ১০ সংখ্যক চৈত্যগৃহ এবং বাকিগুলি সংঘারাম। চৈত্যগৃহদ্বয়ের দ্বারের উপরিভাগে ‘চৈত্য-গবাক্ষ’ নামে পরিচিত | একটি অশ্বনালাকার বাতায়ন বহির্ভাগের বৈশিষ্ট্যদ্যোতক। চৈত্যগৃহের অভ্যন্তরে স্তম্ভশ্রেণীর আসন (ground-plan) শূপের আকৃতিবিশিষ্ট। ছাদের নীচের পিঠ অর্ধবৃত্তাকার ; পূর্বে ইহার গায়ে কাঠের কড়ি-বরগা লাগানো ছিল। | চৈত্যগৃহ হইল দেবায়তন। প্রথম পর্বের এই দুইটি দেবায়তনেই আরাধ্য বস্তু হইল একটি করিয়া শৈলখাত সূপ ; কেননা এই যুগে বুদ্ধমূর্তিপূজার প্রথা প্রচলিত হয় নাই। সংঘারামে শ্ৰমণমণ্ডলীর সমাবেশের জন্য একটি সুপ্রশস্ত দরদালান এবং ইহার তিনদিকে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র আবাসিক প্রকোষ্ঠ নির্মিত হইয়াছিল। প্রায় চারি শতাব্দীব্যাপী নিষ্ক্রিয়তার পর পুনরায় নবােদ্যমে ব্যাপকতর শৈলখাত স্থাপত্যকর্মের সূত্রপাত হয় চতুর্থ-পঞ্চম শতাব্দীতে। অধিকাংশ গুহা নির্মিত হয় বাকাটকদের রাজত্বকালে। এই দ্বিতীয় পর্বে ১১ ও ৭ সংখ্যক গুহাদ্বয়ে পরীক্ষামূলক ধাপ অতিক্রান্ত হইলে সংঘারাম গঠনরীতির মান নির্ধারিত হয়। প্রথমে অলিন্দ, অলিন্দের পশ্চাতে একটি স্তম্ভযুক্ত প্রশস্ত মণ্ডপ এবং মণ্ডপের তিনদিকে প্রকোষ্ঠশ্রেণী ; মণ্ডপের পিছনের সারির কেন্দ্রস্থ প্রকোষ্ঠে বুদ্ধমূর্তি উৎকীর্ণ। এই আদর্শে গঠিত হইলে ও সংঘারামগুলির প্রায় প্রত্যেকটিতেই কিছু না কিছু বিশিষ্টতা বিদ্যমান। ৬ সংখ্যক গুহাটি দ্বিতল। এই সময়কার সংঘরামের