পাতা:Bharatkosh 1st Vol.pdf/৯৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


________________

অণুবীক্ষণ যন্ত্র দুর-বিচ্ছিন্ন। সেইজন্য ইহাদের অণুগুলির যে কোনও দিকে যথেচ্ছ স্বাধীনভাবে যাইবার প্রবণতা বেশি। ফলে যে কোনও গ্যাস সহজেই বহুদূরে ছড়াইয়া পড়িতে পারে। কোনও গ্যাসের ভৌত গুণাবলী একক আয়তনে অবস্থিত অণুসমূহের উপর, উহার ভরের উপর ও গড় গতিশক্তির উপর নির্ভর করে। রাসায়নিক গুণাবলী নির্ভর করে, উহাতে অবস্থিত পরমাণুর সংখ্যা এবং উহাদের সজ্জার উপর। অলক চক্রবর্তী অণুবীক্ষণ যন্ত্র ক্ষুদ্র বস্তুকে বড় করিয়া দেখিবার যন্ত্রের নাম অণুবীক্ষণ যন্ত্র। খালি চোখে কোনও বস্তুকে স্পষ্ট করিয়া দেখিবার ক্ষমতা সীমাবদ্ধ। সাধারণ দৃষ্টিক্ষমতাযুক্ত কোনও ব্যক্তি চোখ হইতে ১০ ইঞ্চি বা ২৫ সেন্টিমিটার দূরের বস্তুকে খুব স্পষ্ট দেখিতে পায়। চোখ হইতে ১০ ইঞ্চির মধ্যবর্তী বস্তু আকারে বড় দেখাইলেও উহা অস্পষ্ট বলিয়া মনে হয় কারণ চোখের লেন্স তখন আর উহাকে ফোকাসে আনিয়া প্রতিবিম্বের সৃষ্টি করিতে পারে না। অণুবীক্ষণ যন্ত্র বস্তুকে চোখের খুব নিকটে আনে এবং প্রতিবিম্বকেও চোখের লেন্সের ফোকাসে লইয়া আসে। প্রতিবিম্বটি আকারে বিবর্ধিতও হয়। ফলে বস্তুটি সহজেই দেখা যায়। অণুবীক্ষণ যন্ত্র দুই 1aWiki প্রকারের। ১. সরল অণুবীক্ষণ যন্ত্র ২. যৌগিক অণুবীক্ষণ যন্ত্র। সাধারণ বিবর্ধক কাচ (magnifying glass) বস্তুতঃ একটি উত্তল লেন্স বা অভিসারী লেন্স