পাতা:Vanga Sahitya Parichaya Part 1.djvu/৪০৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ミbrや বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় । দেখিয়া উষার (১) নৃত্য সব দেবগণ । ধন্য ধন্ত বুলি (২) করে পুষ্প বরিষণ ৷ দেখিলাম ভাল নৃত্য অনেক দিবসে। হেন বুলি স্থরলোকে উষারে প্রশংসে ৷ পারিজাত মালা দিয়া বুলে ত্রিলোচন। বর মাগ অভিলাষে যেই লয় মন ॥ এত শুনিয়া তবে সাহের কুমারী। প্রণাম করিয়া বোলে হস্ত যোড় করি ॥ জগজীবন ঘোষাল । কবি জগজীবন ঘোষাল দিনাজপুরের রাজা প্রাণনাথের সময়ে বিদ্যমান ছিলেন। প্রাণনাথ ১৬০৯ শক বা ১৬৮৭ খৃষ্টাব্দে রাজা হইয়াছিলেন । সুতরাং কবি ১৬শ শতাব্দীর শেষ ভাগে কিম্বা ১৭শ শতাব্দীর প্রথম ভাগে গ্রন্থ রচনা করিয়া থাকিবেন । কবির নিবাস দিনাজপুরের অন্তর্গত “কোচআ-মোরা” গ্রামে ছিল। স্বৰ্গ-পূরে বেহুলার বেশ-বিন্যাশ । আনিয়া পেটারি তার ঘুচাইল ঝাপনি। হস্তে করি নিল বালি (৩) দৰ্পণ বসনখানি ॥ করে ঝারিয়া বালি বিচারিল (৪) কেশ । খোপায় পুতিয়া থুইল ভাটি উজানদেশ । (৫) সুবর্ণ চিরণি লইল হস্তেত করিয়া। একে একে কেশ সব লইল উঙারিয়া (৬) ॥ নারাণ তৈল বিষ্ণু তৈল কেশের গোড়ে দিয়া। খোপাখানি বান্ধে রাম চারি দ্বার খুয়া (৭)। (১) বেহুল পূৰ্ব্ব-জন্মে উষা ছিলেন, এখানে সেই নামে তাহাকে অভিহিত করা হইয়াছে। (২) বলিয়া । (৩) বালিকা । (৪) আঁচরিল। (৫) সম্ভবতঃ ভাটি-উজান দেশের চিরুণী খোপায় গুজিয়া রাখিল। (৬) নিঙড়াইয়া। (৭) চারিটি সিঁথিতে কেশদাম বিভক্ত করিয়া ।