পাতা:Vanga Sahitya Parichaya Part 1.djvu/৬৭৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রামায়ণ–কৃষ্ণদাস পণ্ডিত–১৭শ শতাব্দী। ○○○ কৃষ্ণদাস পণ্ডিতের সংক্ষিপ্ত রামায়ণ । প্রাচীন পুথির সময় নির্দেশ নাই, গ্রন্থকারের কোন বিবরণ পাওয়া যায় নাই। রচনা দেখিয়া সপ্তদশ শতাব্দীর লেখা বলিয়া মনে হয়। রামায়ণের গল্প সংক্ষেপে নিম্নে বিবৃত আছে। এই কবির রচিত বিষ্ণুর অন্যান্ত অবতারের কথাও প্রাচীন পুথিতে পাইয়াছি। গরুড় নামেতে পক্ষী বিনতা-সন্তান। কগুপ-ঔরসে জন্ম মহা বলবান ॥ জন্মমাত্র ক্ষুধা তার হইল বিস্তর। আহার মাগিতে গেল মুনির গোচর ॥ গজ-কচ্ছপেরে দেখাইয়া দিল মুনি। নখেতে বিন্ধিয়া পক্ষী লইল তখনি ॥ সম্মুখে দেখিল এক দীর্ঘতরুবর। আহার করিতে বৈসে তাহার উপর ॥ ভরেতে ভাঙ্গিল ডাল দেখি পক্ষি-রাজ । বৃক্ষের তলেতে আছে মুনির সমাজ ॥ বালখিল্ল মুনি আদি অনেক আছিল। ডাল-ভরে মরে পাছে গরুড় চিন্তিল ॥ নখেতে লইল গজ-কচ্ছপ বিন্ধিয়া । ঠোটেতে করিয়া ডাল চলিল উড়িয়া ॥ বসিবার স্থান তাহে দেখয়ে গরুড়। সুমেরু-শিখরে আসি হুইল আরূঢ়। মনোহর স্থান দেখি বিনতা-নন্দন। লঙ্কার উৎপত্তি । হরষিতে গজ-কুৰ্ম্ম করিল ভক্ষণ ৷ রক্ত-মাংসে একাকার পর্বত-উপর। দেখিয়া করিল ক্রোধ দেব পুরন্দর। ঝনানা চিকুর শিলা ঘন বজ্ৰাঘাত। গরুড় উপরে ইন্দ্র হানয়ে নির্ঘাত ॥ পাখা আচ্ছাদিয়া হরষিতে মাংস খায়। বারেক ইন্দ্রের প্রতি ফিরিয়া না চায়। পরম আননো মাংস করিল ভোজন। পাথ শাট দিয়া পক্ষী উড়িল তখন ॥ পাখ শাট দিয়া তখন গরুড় উড়িল। সুমেরুর শৃঙ্গ ভাঙ্গি সমুদ্রে পড়িল ৷

  • *