১৪


অনেককালের যাত্রা আমার
অনেক দূরের পথে,
প্রথম বাহির হয়েছিলেম
প্রথম-আলাের রথে।
গ্রহে তারায় বেঁকে বেঁকে
পথের চিহ্ন এলেম এঁকে
কত যে লােক-লােকান্তরের
অরণ্যে পর্বতে॥

সবার চেয়ে কাছে আসা
সবার চেয়ে দূর।
বড়াে কঠিন সাধনা, যার
বড়াে সহজ সুর।
পরের দ্বারে ফিরে, শেষে
আসে পথিক আপন দেশে-
বাহির-ভুবন ঘুরে মেলে
অন্তরের ঠাকুর॥

‘এই যে তুমি’ এই কথাটি
বলব আমি ব’লে

কত দিকেই চোখ ফেরালেম
কত পথেই চ’লে।
ভরিয়ে জগৎ লক্ষ ধারায়
‘আছ-আছ’র স্রোত বহে যায়
‘কই তুমি কই’ এই কাঁদনের।
নয়ন-জলে গ’লে।

২৪ চৈত্র ১৩১৮

শিলাইদহ