প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অক্ষয়কুমার বড়াল গ্রন্থাবলী.djvu/৬৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


        বিহরীর স্বপন-পিরীতি,
        দুখী রোগী তাপীর বিস্মৃতি--
        প্রকৃতির শ্মশান-হিয়ায়
        সকলি মিলিয়া বুঝি যায়!
        অন্ধকারে জন্মিয়া রজনী
        অন্ধকারে ত্যাজিল জীবন;
        দেখিল না বুঝিল না কেহ
     শান্ত হৃদয়ের সেই প্রাণান্ত-স্বপন!
             কেবল
     অলক্ষ্যে দেবতা এক  কাঁদিল শিশির-ছলে,
           তিতিল ভূবন।
      বন-পথে যেতে যেতে    কহিল রমণী এক,
           ম্লান হাসি হাসিয়া গরবে,--
           কে পারে বাসিতে ভাল এত
             নারী বিনা ভাবে!
      দূর তরু-তল হ'তে     উত্তরিল নর এক,
            হৃদয়ে চাপিয়া দুটী কর,--
            চির দিন অনুত্তীর্ণ মম
            রহিল এ হৃদয়-সাগর!
      লোক-লোকান্তর হ'তে    নিঃশ্বসিল মৃত এক,
              চাহি' ধরা 'পর,--
      চারি দিকে হেলা-ফেলা, তবু কি সুন্দর!