পাতা:অজাতশত্রু শ্রীমৎ স্বামী ব্রহ্মানন্দ মহারাজের অনুধ্যান - মহেন্দ্রনাথ দত্ত.pdf/১৭১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অজাতশত্রু শ্রীমৎ স্বামী ব্রহ্মানন্দ মহারাজের অনুধ্যান ১৫৭ বিশেষে তিনি উদ্ভ্রান্তচিত্ত হইয়া উঠেন। তখন তিনি এমন একজন লােকের অন্বেষণ করিয়া বেড়ান – যিনি জীবনের সর্ববিধ অগ্নি পরীক্ষার মধ্য হইতে উত্তীর্ণ হইয়াছেন, অথবা, যিনি স্বীয় জীবনে ঠিক তাহার অনুরূপ গভীর বিষাদপূর্ণ অবস্থার আস্বাদন পাইয়াছেন। কিন্তু, কচিৎ তিনি ঐরূপ যােগ্য ব্যক্তির সাক্ষাৎ লাভ পাইয়া থাকেন – যিনি এই গভীর সংশয়পূর্ণ মনের বিভিন্ন অবস্থার কঠিন সমস্যাসমূহ সমাধান করিয়া দিতে পারেন। কেবলমাত্র কতিপয় পরমসৌভাগ্যবান্ পুরুষেরাই এইরূপ উপযুক্ত ব্যক্তির সাক্ষাৎ পাইয়া থাকেন – যিনি তাহার মনের গতি ঠিক ঠিক ভাবে পরিচালিত করিয়া দেন। কখন কখন এই অসহায় যুবক ঐ বিষয় অপ্রত্যক্ষভাবে, পুস্তকাদির মধ্য হইতে, প্রাচীন আচাৰ্যদিগের যথাযথ নির্দেশ জানিতে পারিয়া থাকেন ; কিন্তু, কোন মহাশক্তিশালী মানবের সাক্ষাৎ সংস্পর্শ - ব্যক্তিত্বের গভীর ছাপ এবং তাহার প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালবাসা - অতি সহজেই এইরূপ যুবকের জীবন-গতি অপরিবর্তিত করিয়া দিতে পারে। যাহাই হউক, এইরূপ অসহায় অবস্থায় ভাবী মহাপুরুষের মানসিক যাতনা ও অবসন্নতা ক্রমেই বর্ধিত হইতে থাকে; সমাজ ও বন্ধু-বান্ধবদিগের পূর্ব সংশ্রব - এসকলই তাহার নিকট অত্যন্ত কষ্টকর ও পীড়াদায়ক বলিয়া মনে হয়। তিনি সমাজ ও পূর্ব সঙ্গাদি সমস্ত পরিত্যাগ করিয়া অতি নির্জন,