পাতা:অজাতশত্রু শ্রীমৎ স্বামী ব্রহ্মানন্দ মহারাজের অনুধ্যান - মহেন্দ্রনাথ দত্ত.pdf/৮০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৬৪ অজাতশত্রু শ্রীমৎ স্বামী ব্রহ্মানন্দ মহারাজের অনুধ্যান যাহাতে সে এইরূপ উদ্বেলিতচিত্ত না হয়, সে বিষয়ে সতর্ক করিয়া দিবার জন্য নরেন্দ্রনাথ তাহাকে এইরূপ ব্যঙ্গ করিয়াছিল। ঝড়ের মুখে বলরাম বাবুর পিতার দেহত্যাগ হইলে পর তাহার শ্রাদ্ধ উপলক্ষে লােকজন খাওয়াইবার জন্য জিনিষপত্র লইয়া তুলসীরাম ঘােষ ও রাখাল অন্যান্য লােকজনের সহিত ‘সার জন লরেন্স’ নামক জাহাজে করিয়া কোঠারে যাইতেছিল। জাহাজখানি ডায়মণ্ডহারবার গিয়া ঝড়ের মুখে পড়িল। ভাগ্যক্রমে জাহাজে মালপত্র রাখিয়া দুইজনে ডায়মণ্ডহারবার দিয়া কলিকাতায় ফিরিয়া আসিল। বৈকাল বেলা, ঝিম্ ঝিম্ করিয়া বৃষ্টি পড়িতেছে, আমি বলরাম বাবুর বাড়ী গিয়া দেখিলাম যে, দুইজনে বসিয়া আছে এবং হাসিতামাসা করিতেছে। তাহারা বলিল যে, ভীষণ ঝড়ের জন্য তাহারা নৌকা করিয়া ডায়মণ্ডহারবার দিয়া চলিয়া আসিয়াছে। কয়েকদিন পরে খবর আসিল যে ‘সার জন লরেন্স’ ডুবিয়া যাওয়ায় প্রায় সাতশতাধিক লােকর প্রাণনাশ হইয়াছে। যুবা রাখাল এইরূপে আসন্ন বিপদ হইতে রক্ষা পাইয়াছিল! যুবা রাখাল পরে কালু জাহাজে করিয়া বলরাম বাবুদের জমিদারী কোঠারে গিয়াছিল। বৃন্দাবনে | বোধ হয়, পুরী হইতে ফিরিয়া আসিবার পর, কলিকাতায় কিছুদিন থাকিয়া, যুবা রাখাল বৃন্দাবনে বলরাম বাবুর কুঞ্জে