পাতা:অনাথ আশ্রম - ক্ষীরোদপ্রসাদ বিদ্যাবিনোদ.pdf/১৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ಗ'

ያ .` ጎ፡ ... ',

. . . . . . . . .. "I . I , • • ኔ " ইচ্ছা করলে, এই দণ্ডেই নিরাশীর আলোকে আপনাকে সুস্নাত করতে পারি, অথবা চিরদিনের মন্তন সূচীভেদ্য অন্ধকারে আপনাকে ডুবিয়ে ফেলতে পারি। - । ना না কুৎসিত ত নয়-বেজায় সুন্দর । ਲੁ যেন কোন রাজপুত্তৰ-না না ছোড়া কেন- | এ যে ছড়ীি।। ও বাবা! যেটা ধরছি, সেইটেই উলটে যাচ্ছে ।--তাহ’লে ত লক্ষণ শুভ নয়আমি আজন্ম অবিবাহিত পুরুষ-আর সম্মুখে একটা অখণ্ড অপরিচিত স্ত্রী ! অ্যাকাশে তারা, কম্পিত, না, না-অৰ্দ্ধ কেন-পূর্ণ কম্পিত প্ৰাণটা ! ও বাবা ! চুড়ী যতই এগিয়ে আসছে, - ততই যে প্ৰাণ থারথারিত-হ’ল ন সুখ্যান্বেষণে । ক্ষান্ত দিয়ে আমাকে কিয়ৎক্ষণের জন্য মাথা । গুজে বসতে হ’ল । নসী। সুখ দুঃখ ভোগ আমার নিজের | হাতে। এখন যেটাকে ইচ্ছা ফেলে দিতে পারি, { ? যেটাকে ইচ্ছা গ্ৰহণ করতে পারি। দুনিয়ায় । এটা মনে করলেই ত সব লেটা চুকে যায়। ] গোৱা । আসছে-আসছে। নসী। কিন্তু কই । তা মনে করতে পারছি কই-অপমানিত, লাঞ্ছিত, পদাঘাতে তাড়িত হয়েছি। নিরীহ ধাৰ্ম্মিক পিতাকে নিৰ্ম্মম | . . . . . . . . ۰ خوبی و - ، - ঘাতকে টেনে নিয়ে গেল, তাও দেখেছি-এ { করেছে নাকি ? কাজ নেই-আমি এক রমণী : দেখে, মৃৰ্যবেদনা স্মরণ করলে, আমি কি আর । --তায় বিদেশিনী-এ নির্জন দেশ-সাহায্যের । মত বঞ্চিত হলুম। যে দারিদ্র্যে নিষ্পেষিত হয়ে পিতা একদিন, আমারও পৰ্যন্ত মৃত্যুকামনা ৷ করেছিলেন, এখন আমি তােহাঁতেও অধিকতর গ অবস্থিত। এস্থান আলো-আঁধারের সন্ধিস্থল। " তার হ’তে পারি? প্রতিহিংসা প্ৰবৃত্তি সে । অবস্থা স্মরণ মাত্ৰ-বিনা ফুৎকারে জ্বলে । ওঠে। সুখ-কই ? কোথায় এলো ? দুঃখকই-ইচ্ছা করলে কই ফেলতে পারি? . আলাউদ্দীন বহুসৈন্য নিয়ে গুজরাট জয় করতে চলেছে। কেন ? সেখানে এক নববৈধব্যনিপীড়িত রমণীর হাতে রাজ্যভার। আলাউদ্দীন । এ সুযোগ ছাড়তে পারলে না ! তাই সেই অসহায়ার সর্বনাশ করতে সে আজ বহুসৈন্য নিয়ে গুজরাটে ছুটেছে, অভাগিনীকে দুদিন মন খুলে কঁদিতেও অবকাশ দেবে না। আমি ছদ্মবেশে বরাবর বাদশার সৈন্যের সঙ্গে সঙ্গে এসেছি। কিন্তু রমণী আমি তাদের সঙ্গে সঙ্গে কতদূর চলব! বড়ই ক্লান্ত, আর পারলুম না । দূর থেকে এই দেশটার একটা বিচিত্র শোভায় | আকৃষ্ট হয়ে, এস্থান দেখবার লোভ সংবরণ করতে পারলুম না ! গোর । এলো এলো-ঘেসে এলো । নসী। এই পাৰ্ব্বত্য অধিত্যকায়-এমন চারুশিল্পের আশ্রয়-শিলায় খোদিত চিত্রের ন্যায়, একি শোভাময় উদ্যান । 酶 গোরা ! উঃ ! এবারে আকাশ পানে চেয়ে আসছে! তাহ’লে বুঝতে পারছি ঘাড়ে ct5q 1 -পড়লো। সুখ সুখ - করে পাগলাইয়েছিলে-এই দেখ সুখ একেবারে একটী’, দেড়মানি, তুলোর বস্তা হয়ে তোমার | ঘাড়ে পড়তে আসছে। যাক, আর মাথা তোলা। উচিত নয়। গোলমাল হয়ে যাবে। " নসী। তাইত ! কে একজন বসে রয়েছে । না ! একি, অমন করে বসে কেন ? আমাকে । দেখেছে নাকি ? দেখে কোন দুরভিসন্ধি পোষণ ।