পাতা:অনাথ আশ্রম - ক্ষীরোদপ্রসাদ বিদ্যাবিনোদ.pdf/২২২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


س۱۹ কুটিলা । আমাদেরও স্বামী মাঝে মাঝে বিদেশে বেত । আমরাও অমন কত শ্রাবণের বাদলার রাত একলা কাটিয়েছি। কিন্তু সারাটা রাত বিছনায় পড়ে কখন অমন ছট্‌ফট্‌ করিনি। জাগবার সময় জেগেছি, বসবার সময় ব’সেছি, ওঠ বীর সময় উঠেছি, আবার । ঘুমুবার সময় ভোদা ভোেস ক’রে ঘুমিয়েছি। স্বামি কি চব্বিশ ঘণ্টাই বাড়ী থাকবে ? বিদেশ যাবে না ? তা তার জন্য অত বাড়াবাড়ী কেন ? সারারাত ঘুম নেই।-চোক করঞ্চ ! এ কিরে বাপু! দাদা কালকে মথুরা গেছে। বৃষ্টির | জন্য আসতে পারেনি। আজ যেখানে থাক আসবেই। তার জন্য অন্ত কেন ? ) রাধা। তুমি কি মনে ক’রেছ, তোমার দাদার জন্য আমি সারারাত বিছানায় প’ড়ে ছটফট ক’রেছি ? বৃন্দাবন-বিলাস যাবে। ব্যাপার কি সই ?-ওমা! তাতে । দেখিনি। একি সই! তোমার আজ এমন भूढिं (कन ? भूष ५भन भग्नि-८5ांथ श्ौ नांन -যেন অন্তমনস্ক ভাব-কেন সই ? : কুটিলা । কেন আর কি-এ বয়েসের রোগই ওই । আমরা আছি সংসারধৰ্ম্ম দেখতেসকাল থেকে সন্ধ্যা পৰ্য্যন্ত খেটে ম’ৰ্বিতে-আর ওঁরা আছেন, কেবল অন্যমনস্ক হ’তে, আর চক্ষু দুটী লাল ক’রে বসে থাকুতে। কেমন গো क्ट्रम् ! 6थन दिधमि श्'ल ? अभिई नi BD DBYSJSK KD S SBBSDS S BDDDE কেবল তোমাকে গঞ্জনা দিতেই দেখে। এবার । उ यांशि द'लिनि -दनि \qथुन ॐद, ना এমনি ক’রে অভিমানে অঙ্গ ঢেলে দিন কাটিয়ে দেবে ? বৃন্দা। অভিমান ? তাহ’লে সইয়ের কুটিলা । তা যার জন্যই কর, কিন্তু অতটা আমার অভিমান আছে ! ক’রো না। এরপর অতটা কেন-ওর কিছুই থাকবে না । ( বৃন্দার প্রবেশ ) কি ? আরো কেও কুটিলা ঠাকরুণ ! তুমিও যে ! ননন্দ ভাঁজে মুখোমুখি ক’রে সকাল বেলায় কি এত গোপনীয় কথা হ’চ্ছে ? আমরা বাইরের লোক কি শুনতে পাই না ? * কুটিল। এই ব’সে বসে তুমিই না হয় সমস্ত শোনাটা একচেট ক’রে নাও। দুঃখ কেন ? আমি কেবল দুটো একটা ছুটুক ফাউ কথা শুনে গেলুম বইত নয়। তুমি হ’চ্ছ তোমার সইয়ের অন্তরঙ্গ-সব কথা ত 6डॉभांद्रशे শোনার অধিকার। - বৃন্দ। বেশ, তুমিও তা আমার পর নও। শুনতে পাই ত তোমাকেও কিছু ভাগ দেওয়া কুটিলা । অভিমান নেই ? অঙ্গ টুকু সুধু অভিমানেই গড়া। দাদা কালকে মথুৱা } গিয়েছে, বৃষ্টির জন্য আসতে পারে নি। তাই বৃন্দা। কিগো সই, ব’সে ব’সে হচ্ছে । সইয়ের তোমার অভিমান। দাদা কাল রাত্রে বৃষ্টিতে ভিজে ভিজে ওঁর কাছে আসেন নি কেন, তাই মানময়ী মানসাগরে অঙ্গ ঢেলে ব’সে अएिछन। दून ! बद्ध ६:भू, डॉलदांगांbl কেবল আমরাই দেখাতে পারুলুম না-মান করাটা আমরাই শিখলুম না। --কেবল দেখতে । এসেছি, দেখেই গেলুম। বৃন্দা। বেশ, তুমি যাও, আমি সাইকে । তুলে নিয়ে যাচ্ছি। আী ? বাড়ী গেল না ত, . যেন গায়ে বাতাস লাগল।-যাক-তারপর / একি ভােব বৃষভানুনন্দিনী ? : ব্যাপার কি বল দেখি সখি! আজি তোমার