পাতা:অনাথ আশ্রম - ক্ষীরোদপ্রসাদ বিদ্যাবিনোদ.pdf/৪৬২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ভক্তের এ দুঃখ আর সহিতে 恋 আমি আসি নব-জলধর বিজয়ীরেখা সেঁা করিয়া তাহাদেব ! ! চোখের উপর দিয়া চলিয়া গেল। মহেশ্বর } বলিয়া উঠিলেন -“গোলোকনাথ একি ? ক্ষীরোদ- | তলবাসিনী সুধাভাণ্ডধারিণী দেবতায় অমরু কারিণী মোহিনি! আবার কি ভোলাকে পাগল | করিয়া ব্ৰহ্মাণ্ড ছুটিাইবে ?” দেবগণ কৃতাঞ্জলি- { পুটে গদ গদ কণ্ঠে বলিল, “দয়াময় এ কি ?” { দয়াময় বলিলেন, “এবারে এই, এবারে माझेरी डश्र-चडठान्न ।” “হেনরী মার্টিনী, শ্লাইডার, টরপেডো, } মাকৃসিম কামান আবিষ্কৃত হইয়াছে। যুদ্ধ করিতে পারিব না, তোয়েল ফিশারি হইয়াছে মীন হইতে । পারিব না, বরাহ হইয়া গুলি খাইয়া ‘হম’ । হইতে পারিব না, কুৰ্ম্ম হইয়া হোটেলের গ্লাসকেস শোভিত করিতে পারিব না । নরসিংহ হইয়া । আলিপুরের পশুশালায় কে প্রবেশ করিবে ? ? বৃন্দাবনবিলাসী হইয়া মেজেষ্টিরের কাটাগড়ায় | কে উঠবে ? ভারতবর্ষে আর পয়সা নাই | হইয়া পুরুষের তেজ ভাঙ্গিব। তােমরা নিৰ্ভয়ে | যে যার গৃহে গমন কর।” তখন,- { সগৰ্ব্বে রবলি বীণা বাজিল মুৱলি । দেবগণ ঘরে চলে হরি হরি বলি। " মৰ্ত্তের পুরুষ গুলা করে হায় হয়। । , সিন্ধু হ’ল জল, ” | ফিরিয়া যাইতেছে। কাহাকেও বা জা মুক্তি। হিমালয়- হুইতে কুমরিকা, . = { হইতে সিলেট, গিলঘিট হইতে সুন্দরবন, কাছাড় । क्श। | हरे কবি জীবের । তফাতে কেবল মাত্র মরুভূমে বারি, ” রমণী পুরুষ হ’ল, নর হল নারী । ) অবতরণিকা। : শ্ৰীমতি ক’ননিকা । কবিরাজকুল কলঙ্কিত —শ্ৰীবিষ্ণু-উজ্জ্বল করিয়াছেন। চ্যবনপ্রাস, কস্তুরীভৈরব, ত্ৰিফলাকল্প, মকরধ্বজে মনুষ্যের আর উপকার হয় না বুঝিয়া, ম্যালেরিয়াপ্ৰপীড়িত বঙ্গে আয়ুৰ্ব্বেদের অস্তিত্ব ধীরে ধীরে লোপ পাইতেছে দেখিয়া, কাননিকা । मृउन পথাবলম্বনে নূতন, ঔষধের আবিষ্কার করিয়াছেন । ইহাতে এলোপ্যার্থীর কম্পজর, হোমিওর পালা, আর আয়ুৰ্ব্বেদের সন্নিপাত ; ইহাতে টেরাপ্ৰাখীর পাতাল গমন, হাইড়ো ! পাখীর বিরেচন, ইলেক্‌ট্রোর বমন ইহাতে রোগীর জ্বর-জ্বালা ऊ छूद्र श्रदर्शे ; अविक्ळु ক্ষুধার্তের ক্ষুধা মরিবে, তৃষ্ণাৰ্ত্তের পিপাসাপ বিয়োগী আত্মীয়স্বজনে পরিবৃত হইবে, মরণোন্মুখ নর ঔষধ-প্রভাবে মত্তমাতঙ্গের বল ধরিবে । আর কি হইবে ?-ঔষধের গুণে গহন বনে শুদ্ধ তরু মুঞ্জরিবে। – লক্ষ লক্ষ লোক মূহূৰ্ত্তের মধ্যে আরোগ লাভ করিতেছে। কেহ ঔষধ লইতে আসিয়া পথেই আরোগ্য লাভ করিয়া, পথ হইতেই কোকী, সকল । t