পাতা:অনাথ আশ্রম - ক্ষীরোদপ্রসাদ বিদ্যাবিনোদ.pdf/৪৮৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কাননিকাও দাদার প্রত্যুত্তরে মুক্তাপাতি বাহির করিয়া বুলিল,-“আন।।” (১) আমি তারে চিঠি লিখি। যেখানে জেড়োয় রাজত্ব করিবি, মিয়াকোয় চা খাইবি, হঙকঙে গান গাইবি, চুকিয়াংএ সাতার কাটিবি! আর লাইহংচংএর সঙ্গে আলাপ করিবি। কাননিক মতামহের কথায় আর কোন উত্তর দিল না, মাকে দেখিয়া ছুটিয়া গিয়া কোলে উঠিল, আর বলিল, “মা একটা হাম।” মাত কন্যার মুখচুম্বন করিল, সকল লেঠা চুকিয়া গেল। বেশ হইল, কাননিকা সব শিখিল ; কিন্তু কবিতা লিখিল কে ? যদি - বাঙ্গালাই শিখিতে পাইল না, যদি আজীবন ইংরাজী লইয়াই কান- | নিকা দিন কাটাইল, তবে কেমন করিয়া কবি কাননিকা কাস্তগিরের আবির্ভাব হইল ? অথবা এ কি সেই কাননিকা ? না কাননিকা একটা । { বেশী করিয়া চা খাইতে দিবেন। " প্ৰহেলিকা ? কাননিকা বিদ্যালয়ে পড়িতেছে, নিরঞ্জন । আজ মিলটনের - “স্বৰ্গবিদ্যুতি” গ্রন্থের শয়তানের সহিত কাননিকার প্ৰথম সাক্ষাৎ হইল। কাননিকার শয়তানচরিত্র বড় মধুর লাগিয়াছে। বালিকা এক রিপোর্ট পড়িতেছেন। ; প্ৰশংসা করিতেছে। আর কেবল বলি . . . . . . | নাই, শয়তান জয়ী হইলে, পৃথিবীতে পাপের निद्रश्न। हैं कि न दल, ७ नत्र कुंझे | **** হইবে, দুই দিনের মধ্যেই পাপ- | মাইচু বুঝিতে পারি না। র্বে করিস ত বল, { ভারে পৃথিবী ডুবিয়া যাইবে। কাননিকা এ | कथांश ज़्छे श्न नां, निज्ञ, ‘ट्रदिब्रां गाईप्त কোথায়? আর যদিই ডুবিয়া যায়, আমরা ! সকলে জাহাজে করিয়া বেড়াইব ।’-আমরা তর্কে তাহাকে হারাইতে পারিলাম না। : এমন বুদ্ধিমতী ঝালক: পৃথিবীর আর কোন ৷ স্কুলে কোন কালে ভৰ্ত্তি হইয়াছিল কি না । ! সন্দেহ। কাননিকাকে বাতাস থাইতে, হিম { লাগাইতে, বেশী বেড়াইতে, কথা কহিতে, { কিছুই করিতে দিবেন না। একটি গ্লাসকেশে । পূরিয়া রাখিবেন। আজ কাননিকা দান্তের প্রেতিপুৱীতে প্ৰবেশ । করিল। সেখানে প্ৰেতগণের সহিত কথা কহিতে । তাহার কিছু আগ্রহ দেখিলাম। প্রেতিপুৱীতে | হাঁটতে হাঁটতে তাহার কল্পনা কিছু ক্লিষ্ট হই য়াছে। সুতরাং বাড়ী যাইলে তােহাঁকে একটু - আজ কুমারী বাগভট কাউপারের ‘সোফায়” চড়িল। সোফার জন্মকথা শুনিয়া কনানিকা একটু হাসিয়া বলিল, আগেকার লোকগুলা । 6 ड़ मूर्थ, 6ई 6नाक्। अलु ठ कब्रिड qठ | কাল কটাইল! দু টাকার স্থানে দশ টাকা । শয়তান সৃষ্টির জন্যই সেই অন্ধ কবির ভূয়সী { করিলে এক দিনের মধ্যে সুধু সোফা কেন, , - বলি- ; কত কোঁচ, কত শ্ৰীংএর গদী পর্যন্ত তৈয়ারী তৈছে, “হে শয়তান, আমি কায়মনোবাক্যে ৷ হইয়া যায়! কাননিকাকে কি আপনি পূর্বে তোমার জয় কামনা করিতেছি, তুমি বজ্ৰধাৱী । ঈর্ষ্যপরায়ণ যথেচ্ছাচার স্বৰ্গাধিপকে পরাভূত করিয়া নিষ্কণ্টকে বুজ্যভোগ কর।” আমরা | | un --------------------! লয়ে হুলস্থূল বাধাইয়াছিল। টেস্পেষ্টের এরিয়েল । চরিত্র পাঠ করিতে করিতে এমনি তন্ময়ী । সোফা পড়াইয়াছিলেন ? সে এমন সুন্দর । সমালোচনা শিথিল কোথায় ? ? ? আজ কান্তগির আর একটু হইলেই বিদ্যা- ?