পাতা:অনাথ আশ্রম - ক্ষীরোদপ্রসাদ বিদ্যাবিনোদ.pdf/৪৯২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


: ҳ: , . . . : ... " 4" i ... ..". কঁওয়া হইবে না। ও তোষামোদের ভাণ্ডার খুলিয়া দিক,--“কিঞ্চিৎ কাহিল কাহিল। দেখিতেছি, কেমন আছেন, বাড়ীর সংরাদ ভাল”, ” -ইত্যাদি যা মনে আসে বলুক, আমি কথা কহিব না। ও বলুক “আপনাকে দেখিয়া । আমার প্রাণে ভক্তি আসিয়াছে, আপনার তুল্য। মহৎ জগতে আর নাই, আপনি ডেপুটীকুলচূড়ামণি, আপনি ধৰ্ম্মাবতীর”—আমি কথা কহিব ৭ না। ও বলুক, “আপনিই কেবল বাঙ্গালীর | হইয়াছে।” । মধ্যে পূৱা পেন্সন পাইয়াছেন, আপনার অবসর গ্রহণের পর হইতে দেশে চুরি ডাকাতি বাড়ি- } য়ছে, গ্রামবাসিগণ আবার মাথা তুলিয়াছে’- আমি কথা কহিব না। নিরঞ্জন স্থিরপ্রতিজ্ঞ, যুবকও স্থিরপ্রতিজ্ঞ। অথবা তার অভ্যন্তরে এমন কোন শক্তি সঞ্চা- ৷ রিত যে, বৃদ্ধের সহিত দুই একটা কথা না । কহাইয়া তাঁহাকে নড়ায় কার সাধ্য ? নিরঞ্জন । ফিরিয়া দাড়াইলেন, যুবকও ঘুরিয়া ঘুরিয়া সম্মুখে । আসিল । নিরঞ্জন আবার ফিরিলেন, যুবকও আবার ঘুরিল। নিরঞ্জনের জ্ঞান-বাৰ্দ্ধক্যাপিষ্ট । ক্ৰোধ একবার হৃদয় মাঝে গাঝাড়ি দিল । পদাভিমান নিরঞ্জনের অন্যমনস্কতার অবকাশে, । সেই ক্রোধকে মুক্ত করিবার সাহায্য কঠিতে | টান দিল। ক্ৰোধ মুক্তি পাইয়া কণ্ঠে আসিল, । । Silqgi | করিলেন, বিরক্তিকর যুবকটাকে পুলিশে দিব, - প্ৰাতঃস্নাত গৃহপ্ৰতিগমনশীল৷ ললনাকুলের দ্রুত | আমনি তিনি যেন একটা লাল পাগড়ী দেখিতে । পজ, সিক্ত বস্ত্রের কােপর ঝাপর শব্দ, । পাইলেন। যেমন লাল পাগড়ী দেখা, অমনি । নিরঞ্জনের প্রতিজ্ঞ৷ টলিল। নদীতটোখিত । পাদবিক্ষে শান্ত শৈবাললিনীর তরঙ্গজননী বাষ্পীয় তরুণীর } চাপল্যাস্থ্যোতিক ধ্যাস ঘাস শব্দ, আর পোর্ট কমিশনারকীৰ্ত্তি কৰ্ণে তালাদাত্রী হুইসলবাদিনী । Šछैन। কণ্ঠনির্মুিক্ত রিপুরাজকে বহির্গমনে বাধা দিবার জন্য পরস্পর সংলগ্ন হইয়া, তাহার সহিত কুস্তি আরম্ভ করিল। কিন্তু ধারকরা (mercenary) সৈন্য কতক্ষণবীর শত্রুর সঙ্গে যুদ্ধ করিতে পারে ? বঁধান দাঁত দুই এক বার কড় বড় করিল এই মাত্র, তার পর সব ফাঁক । দন্তপংক্তি হস্তাগ্রে, ক্ৰোধ একেবারে রসনাগ্রে । নিরঞ্জন বলিলেন, “তোমাকে সভ্যভবের ন্যায় দেখিতেছি, কিন্তু তোমার আচরণ দেখিয়া আমার বিপরীত বোধ যুবক। আঞ্জে, আপনার যাহা বোধ হইয়ছে, তাহা অনেকটা সত্য। অনেকটা কেন একেবারে পূৱা যোল আনাই সত্য। জুনে ; আর জানে তার স্রষ্টা । কিন্তু সে কথা নিরঞ্জনের আদৌ ভাল লাগিল, না ! নিরঞ্জনের বোধ হইল, যেন কথাটা রহস্তের ছলেই বলা হইয়াছে। সুতরাং তঁাহারও রহস্য করিবার একটু ইচ্ছা হইল। এবং পুলিশের যুবক সরল প্ৰাণে কহিল কি না, যুবকই, | পৌনে পোনের আন সত্য, তাই বা কেন, রহস্যময় হস্তে সেই রহস্য বুঝাইবার ভার ন্যস্ত । করিবার অভি কল্পনা ইচ্ছাসহচরী। নিরঞ্জন যেই মনে লাল-পাগড়ীয় গুহাঁধার সেই ভীষণ লোকালয়ের সুন্দরবন,অশ্বখবটসহকারবেষ্টিত, রক্তিম, মহাকুমার ; কাছারীটিও চােখের উপর আসিয়া পড়িল । রাঘব-বোয়ালই যদি দৃষ্টজালে পড়িল, তবে তার উদরগত রোহিত শফী, এরাই বা বাকি থা 6कत्र ? अ লাষটাও সেই সঙ্গে জাগিয়া। شد .