প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অন্ধকারের আফ্রিকা.djvu/১০৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Jव्न& S eኛ© নিগ্রোদের ঠকিয়ে তাদের যথাসর্বস্ব অপহরণ করব অথচ তাদের সম্বন্ধে কিছু জানিব না। এই হল আমাদের দেশের লোকেয়া অভ্যাস । কিন্তু এরূপ করে কি দিন যাবে? ভারতবাসী যে ভাবে ভবিষ্ণুত চিন্তা করে পৃথিবীর অন্য কোন, জাত সেভাবে তাদের ভবিষ্যৎ চিন্তা করে না। চিন্তাধারার মাঝেও ভারতবাসীর বৈশিষ্ট্য আছে! বৈশিষ্ট্যতা আর কিছুই নয়, শুধু অদূরদর্শিত। বিকাল বেলা স্বচ্ছ আকাশের নীচে, স্বচ্ছ জলের উপর তার তর করে যখন বাষ্পীয় তরণীখানা চলছিল তখন আমার দৃষ্টি দুটি ছেলের প্ৰতি আপনা হতেই পড়েছিল। একটি ছেলের বয়স পািনর হতে ষোল আর অন্যটির বয়স সাত হতে আট বৎসর। উভয় ছেলেকে দেখলেই মনে হয় খাটি ইউরোপীয়ান। কোন দোষে তারা নিগ্রোদের মত থাকিছিল এবং খাচ্ছিল তা জানিবার জন্য মন আপনা হতেই উৎসুক इरुटि । বিকেলবেলা দুটি ভাই যখন খেতে বসল। তখন দেখলাম, তাদের মিলি মিলি ( Mili-Mili ) দেওয়া হয়েছে। তারা নিগ্ৰো প্ৰথায় হাত দিয়েই অল্প অল্প করে খাচ্ছে । যা খেল তা তাদের পক্ষে প্রচুর এবং তৃপ্তির সহিত খেয়েছে তা বেশ ভাল করেই বুঝলাম। খাবার পর তারা জাহাজের জলের কল খুলে জল খেল। বুড় ছেলেটি একটা নিকৃষ্ট সিগারেট জাহাজোৰু এক কোণে বসে গিয়ে ফুকতে লাগল। তারপর যখন সন্ধ্যা হল, নিগ্রো প্রথায় তারা শুয়ে পড়ল। তারা যখন গভীর নিদ্রায় নিদ্রিত তখন আমি কেবিনে এসে তাদেরই কথা আমার ডাইরীতে লিখলাম । পরদিন প্রাতে প্রভাতী খানা খাবার পর আমি ছেলে দুটির সংগে কথা বলে জানলাম, তাদের মা নিগ্রেী এবং পিতা বৃটিশ ।