প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অন্ধকারের আফ্রিকা.djvu/৭৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অরণ্যে (S তিনটি পাতাতে রেখে তার নিজের ভাগ আপন মনে সে যখন খাচ্ছিল তখন অদূরে ছোট্ট একটা জানোয়ার দেখা গেল। জানোয়ার একটি খরগোষ । খরগোষািট বোধ হয় এ জীবনে মানুষ দেখে নি, সেজন্য সে মানুষকে ভয় না করে মানুষ কেমন হয় তাই দেখতে এসেছিল । খরগোষ দেখে আমার সাথী কপালে চোখ উঠাল । তার পর নানারূপ মৃত্য, করে নানা কথা বলে আবার বসে পড়ল, সে আর খেল না । অপর লোকটি ভয়ানক পরিশ্রাস্ত থাকায় বিছানাতে শুয়ে রয়েছিল । আমি তাকে ডেকে উঠালাম, এবং জিজ্ঞাসা করলাম অন্য লোকটি এমন করে কেন নৃত্য করল। সে তার বন্ধুকে সকল কথা জিজ্ঞাসা করে আমাকে জানালে, “এখানে বিপদের সম্ভাবনা আছে । সে একটি খরগোষ দেখেছে। খরগোষ যেখানেই থাক না। কেন, তাকে, হত্যা করে ভক্ষণ করার উপযুক্ত জানোয়ারও। সেখানে থাকে । এদিকে সাপের উপদ্রব আছে । তবে ভয় করে লাভ নাই। আমরা পালা কবে শুইব । যাতে করে আগুন জ্যালিয়ে রাখা যেতে পারে কাছে সেরূপ শুকুনা কাঠও ছিল না। লোকটির কথা শুনে আমায় বেশ ভয় হ’ল, কারণ সাপকে আমি ঘূণা করি । সন্ধ্যা হ’ল। আকাশে চাঁদ উঠল। চাদের আলো “হে” ঘাসের উপর পতিত হয়ে এক অপরূপ সৌন্দৰ্য ধারণ করল । কখন কখন বা দমকা বাতাসে হে ঘাসকে এমনই সুন্দরভাবে আলোড়িত করতে লাগল। যা দেখে মনে হ’ল, ঘাসের উপর ছোট ঢেউ বয়ে যাচ্ছে। আমি অনেকক্ষণ সে ঢেউ দেখলাম। তার পরই মনে হ’ল অদূরে 'কি-যেন একটা মাথা উঁচু করেছে, ক্রমেই তায় মাথাটা উঁচু হয়ে হঠাৎ লোপ হয়ে গেল। আমি তৎক্ষণাৎ একজন সার্থীকে জগালাম এবং যা দেখেছি তাই বললাম। সে কতক্ষণ মাথা চুলকিয়ে সাথের