পাতা:অন্ধকূপ-হত্যা-রহস্য - মুজিবর রহমান.pdf/৬০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


“অন্ধকূপ-হত্যা”-রহস্য | ‘ল্য’ এর উপাখ্যান ব্যতীত এই সব পত্রের সমস্তগুলিই চন্দননগর হইতে লিখিত। রেকর্ড (ক) হইতে আমরা জানিতে পারি লেখক একজন ইংরাজের নিকট হইতে এ বর্ণনার তথ্য গ্রহণ করিয়াছিলেন। তিনি আরও বলেন যে, তিনি অন্ধকূপ হইতে জীবিত লােকের একজন এবং তিনি চন্দননগরেও গিয়াছিলেন। তাহার বর্ণনা হইতে আরও জানিতে পারা যায় যে, সে ব্যক্তি অন্ধকূপের মধ্যে একটা সার্ট পরিয়াই প্রবেশ করিয়াছিলেন। উত্তাপবশতঃ তাহার মুখ শুকাইয়া গেলে তাহার দেহনিঃসৃত ঘৰ্ম্মসিক্ত সার্টের ভিজা আস্তিন মুখে দিয়া মুখসিক্ত রাখে। (৫৩) (এই বর্ণনা এই পুস্তকে উদ্ধৃত করা হয় নাই। এই ব্যক্তি কে? আমরা হলওয়েল এর ৪র্থ পত্র ও অন্যান্য পত্র হইতে জানিতে পারিয়াছি যে, হলওয়েল নবাবের সঙ্গে চারি দিবস চন্দননগরে ছিলেন, ( ২৮শে জুন হইতে ২রা জুলাই পর্যন্ত) (৫৪) হলওয়েল এর ৪র্থ পত্র হইতে আমরা আরও জানিতে পারি তিনি মাত্র একটা সার্ট পরিয়াই কারাগারে বন্দী হইয়াছিলেন এবং তাহার মুখ শুষ্ক হইয়া গেলে তার দেহনিহত ঘর্মসিক্ত সার্টের আস্তিন মুখে দিয়া মুখ ভিজান। (৫৫) এই লেখক আরও বলেন যে অন্ধকূপে ১৬০ জনকে বন্দী করা হইয়াছিল। (৫৬) হলওয়েল কর্তৃক সাইএর নিকট প্রেরিত পত্রে আমরা জানিতে পারি যে, সে পত্রে তিনি ১৬০ জন বন্দীর কথা উল্লেখ করেন। (৫৭) এখন পাঠক সহজেই অনুমান করিতে পারেন আমাদের ফরাসী লেখক কাহার নিকট হইতে এসব তথ্য সংগ্রহ করিয়াছেন—হলওয়েল, না অন্য কেহ ? (৩) Hill: Vol I, p. 51 (৫৪) Hill: vol 1, p. 33। ৫৫) Hiii: Vol iii, p. 14f; India Tracts p. 39o (৫৬) Hill: vol i. p. 50 ৫৭) Hill: Vol I, p. 62 ।