প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অপরাজিত - বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/১০১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*霸T哥穹 SOS সাত দিন । যাক, আর পারবো না, আপনি আর আসবেন না-আমার ভাত একজন ভন্দরনেকের ছেলে খেয়েছে ভাববো, আর কি করব ? কথাগ,লি খাব ন্যায্য এবং আদৌ অসঙ্গত নয়, কিন্তু খাইতে গিয়া এরূপ রাঢ় প্রত্যাখ্যানে অপর চোখে জল আসিল । তাহার তো একদিনও ইচ্ছা ছিল না যে, ঠাকুরকে সে ফাঁকি দিবে, কিন্তু সেই প্রীতির টিউশনিটা ছাড়িয়া দেওয়ার পর আজ দ,ই-তিন মুস একেবারে নিরপোয় অবস্থায় ঘারিতেছে যে ! বিপদের উপর বিপদ । দিন-দাই পরে কলেজে গিয়া দেখিল নোটিশ বোডো লিখিয়া দিয়াছে, যাহাঁদের মাহিনা বাকী আছে, এক সপ্তাহের মধ্যে শোধ না করিলে কাহাকেও বার্ষিক পরীক্ষা দিতে দেওয়া হইবে না। অপটিক্ষ অন্ধকার দেখিল । প্রায় গোটা এক বৎসরের মাহিনাই যে তাহার বাকী !-মাত্র মাস-দাইয়ের মাহিনা দেওয়া আছে--সেই প্রথম দিকে একবার, আর প্রীতির টিউশনির টাকা হইতে একবার-তাহার পর হইতে খাওয়াই জোটে না তো কলেজের মাহিনা। --দশ মাসের বেতন ছ’টাকা হিসাবে যাট টাকা বাকী । কোন দিক হইতে একটা কলঙ্কধরা নিকেলের সিকিও আসিবার সংবিধা নাই যাহার, ষাট টাকা সে এক সপ্তাহের মধ্যে কোথা হইতে যোগাড় করবে ? হয়ত তাহাকে পরীক্ষা দিতে দিবে। না, গ্রন্মের ছটির পর সেকেণ্ড ইয়ারে উঠতে দিবে না, সারা বছরের কথািট ও পরিশ্রম সব ব্যৰ্থ নিরর্থক হইয়া যাইবে } কলেজ হইতে বাহির হইয়া আসিয়া সমাধ্যার সময় সে হাত-খরচের পয়সা হইতে চাউল ও আল কিনিয়া আনিয়া থাকিধার ঘরের সামনের ধারাদাতে রামার যোগাড় করিল । হোটেলে খাওয়া বন্ধ হইবার পর হইতে আজ কয়দিন নিজে রধিয়া খাইতেছে । হিসাব করিয়া দেখিয়াছে ইহাতে খাব সস্তায় হয়, কাঠ কিনিতে হয় না। নিচের কারখানার ছাতার-মিস্ত্রীদের ঘর হইতে কাঠের চোঁচ ও টুকরা কুড়াইয়া অনে, পাঁচ-ছয় পয়সায় খাওয়া দাওয়া হয় । আল ভাতে ডিমভাতে আর ভাত । ভাত চড়াইয়া ডাক দিল-গু বহু-বহ-নিয়ে এসো, আমার হয়ে 汾阿夺°C研一ög府夺节吋s q阿T一 কারখানার দারোরান শম্ভুদত্ত তেওয়ারীর বেী একখানা বড় পিতলের থালা ও eSDSu DDD S BO DBDDYMY DD DDBS S i BuDBBD DY KYL আনিল । থালা ধাসন নাই বলিয়া সেই দই বোলা থালা আনিয়া দেয়। হাসিমখে বলিল, মছলিকা তরকারী হয় নেহি হু?ে গা বাধাঁজ- ; -কোথায় তোমার মছলি ?-৫ শব্ধ। আল--একটু হলদিবাণ্টা এনে দ্যাও ন্য বহন ? রোজ শ্লোজ আলফ্লোতে ভাল লাগে না বািহকে ভাল বলিতে হইবে, রোজ উচ্ছটি থালা নামাইয়া লইয়া যায়, নিজে মাজিল্লা লগ্ন-হিন্দ স্থানী ব্ৰাহ্মণ যাহা কখনও করে না-অপ বাধা দিয়াছিল, বিহ বলে, তুমি তো হামার লেণ্ডুককে বরাবর গ্রোগে বাবাজী-ইসমে ক্যা হ্যায় ?-- • দিন কতক পর মায়ের একটা চিঠি আসিল, কুঠাৎ পিছলাইয়া পড়িয়া সবজায়ার পায়ে বড় লাগিয়াছে, পয়সার কােট ঘাইতেছে । মায়ের অভাবের খবর পাইলে